পুরুষ ও মহিলাদের ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা কী হওয়া উচিৎ? বাড়লে কী করবেন! - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Sunday, 22 May 2022

পুরুষ ও মহিলাদের ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা কী হওয়া উচিৎ? বাড়লে কী করবেন!


ইউরিক অ্যাসিডের বৃদ্ধি একটি অবনতিশীল জীবনধারা এবং দুর্বল খাদ্যাভ্যাসের ফলাফল।  ইউরিক অ্যাসিড এমন একটি রাসায়নিক যা প্রত্যেকের শরীরে তৈরি হয়।  কিডনি প্রস্রাবের মাধ্যমে শরীর থেকে ফিল্টার করে।  শরীরে এর পরিমাণ বেড়ে গেলে কিডনির পক্ষে শরীর থেকে ফিল্টার করা কঠিন হয়ে পড়ে।  মায়ো ক্লিনিকের এক গবেষণায় দেখা গেছে, বিশ্বের প্রতি পাঁচজনের মধ্যে একজনের ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা বেশি।


 ইউরিক অ্যাসিড বৃদ্ধির জন্য অনেক কারণ দায়ী যেমন স্থূলতা, উচ্চ পিউরিনযুক্ত খাবার গ্রহণ, অ্যালকোহল সেবন, জেনেটিক সমস্যা, হাইপোথাইরয়েডিজম, কিডনির কার্যকারিতা হ্রাস এবং কিডনি ব্যর্থতা।


 ইউরিক অ্যাসিড মিলিগ্রাম (mg) এ পরিমাপ করা হয় এবং রক্ত ​​ডিসিলিটারে (dL) পরিমাপ করা হয়।  মহিলাদের এবং পুরুষদের মধ্যে ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা আলাদা।  আসুন জেনে নিই নারী ও পুরুষের ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা কতটা হওয়া উচিত এবং কীভাবে বেড়ে যাওয়া ইউরিক অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণ করা যায়।


 নারী ও পুরুষের ইউরিক এসিড কত হওয়া উচিত: মহিলাদের ইউরিক এসিডের স্বাভাবিক মাত্রা ২.৪ থেকে ৬.০ mg/dL এবং পুরুষদের ২.৮ থেকে ৭.০ mg/dL হওয়া উচিত।  ইউরিক এসিড প্রত্যেকের শরীরে তৈরি হয় এবং কিডনি তা ফিল্টার করে সহজেই অপসারণ করে।  শরীরে এর মাত্রা বেশি হওয়া একটি সমস্যা।


 ইউরিক অ্যাসিড: ইউরিক অ্যাসিড বেড়ে গেলে হাড়ে ব্যথা হয়?  গরম জলের সঙ্গে এই জিনিসগুলো খেলে তাৎক্ষণিক আরাম পাওয়া যায়!


 ইউরিক অ্যাসিডের বর্ধিত মাত্রার বৈজ্ঞানিক নাম হাইপারুরিসেমিয়া।  রক্তে ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে গেলে শরীরে এর ক্রিস্টাল তৈরি হয়, যার কারণে হাত ও পায়ের আঙ্গুলের জয়েন্টে ব্যথার অভিযোগ থাকে।


 ইউরিক অ্যাসিড কেন বাড়ে: খাবারে উচ্চ প্রোটিন জাতীয় খাবার যেমন মাটন, গরুর মাংস বা মেটে গ্রহণ করলে ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা দ্রুত বেড়ে যায়। অতিরিক্ত রোজা বা ডায়েট করলেও ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে যায়। কিডনিতে সমস্যা হলে ইউরিক অ্যাসিডও বাড়তে পারে।


 ইউরিক অ্যাসিড বেড়ে গেলে কী হয়?


 ইউরিক অ্যাসিডের মাত্রা বেড়ে গেলে বেশি করে জল পান করুন।  আমরা যখন বেশি জল পান করি তখন প্রস্রাবের প্রক্রিয়ায় শরীর থেকে বেশি পরিমাণে ইউরিক অ্যাসিড বের হয়ে যায়।


 পিউরিন সমৃদ্ধ খাবার এড়িয়ে চলুন।  পরিশোধিত বা প্রক্রিয়াজাত খাবার ইউরিক অ্যাসিড বাড়াতে কার্যকর।


 ইউরিক অ্যাসিড কমাতে খাবারে ফল খান।  ফলের মধ্যে আপেল, স্ট্রবেরি এবং ব্লুবেরি হল চমৎকার ফল যা ইউরিক অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণ করে।


 ইউরিক অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণে আপেল সিডার ভিনেগার ব্যবহার করুন।


 নিয়মিত ব্যায়াম এবং যোগব্যায়ামও ইউরিক অ্যাসিড নিয়ন্ত্রণে রাখে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad