বন্যার জল নামলেও নতুন সঙ্কটে সিলেটবাসী! - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Saturday, 25 June 2022

বন্যার জল নামলেও নতুন সঙ্কটে সিলেটবাসী!


গত কয়েকদিনে বন্যায় ভয়াবহ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছিল। তবে বর্তমানে, সিলেট নগরী ও এর আশপাশের এলাকা থেকে বন্যার জল নামতে শুরু হয়েছে। কিন্তু বন্যার জলে জমে থাকা নোংরা থেকে এখন তীব্র দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে, ত্বকের নানান সমস্যা দেখা দিচ্ছে। ফলত দুর্ভোগ থেকে এখনই মুক্তি পাচ্ছেন না স্থানীয়রা। যদিও বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্র থেকে বন্যার্তরা বাড়ি ফিরতে শুরু করেছেন।


শনিবার সকালে বিভাগীয় শহর ও সংলগ্ন এলাকায় দেখা গেছে, শহর থেকে বন্যার জল উল্লেখযোগ্য পরিমাণে নেমে গেছে এবং অধিকাংশ মহাসড়ক পুনরুজ্জীবিত হয়েছে। শাহজালাল উপশহর, তালতলা সড়কসহ গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি সড়ক ও কয়েকটি গলি এখনও জলের নিচে। কিন্তু এই প্রতিকূলতা সত্ত্বেও সড়কে যানবাহন চলাচল করছে।


এদিকে, ময়লা জল থেকে তীব্র দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ায় শহরের জাতরপুর, মিরাবাজার, শাহজালাল উপশহর, সোবহানীঘাট, মির্জা জাঙ্গাল, তালতলা, জামতলা, শেখ ঘাট, ঘাসিটুলা, কুয়ার পাড় ও লালদীঘির পাড় এলাকায় পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে।


যাত্রাপুর এলাকার বাসিন্দা শাহনেওয়াজ হোসেন বলেন, 'জল কমতে শুরু করলে তাদের দুর্ভোগ নতুন রূপ নেয়। আগে বন্যার জল একটু ঘোলা হলেও তেমন ময়লা ছিল না। এখন, জল নোংরা এবং কালো।' তিনি আরও বলেন, 'নোংরা রাস্তা দিয়ে হাঁটলে পথচারীরা ত্বকের জটিলতার সম্মুখীন হচ্ছেন।'


সিলেট জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, বন্যায় জেলার প্রায় ৩ লাখ ৮৯ হাজার ৩২০টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং ২২ হাজার ১৫০টি ঘরবাড়ি ও ২৮ হাজার ৯৪৫ হেক্টর ফসলি জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।


সংলগ্ন নদীগুলির জলস্তরও উল্লেখযোগ্য পরিমাণে হ্রাস পেয়েছে। শনিবার সকালে সুরমা নদীর কানাইঘাট পয়েন্টে ১৩ দশমিক ৫৮ সেন্টিমিটার এবং সিলেট পয়েন্টে ১০ দশমিক ৮২ সেন্টিমিটার প্রবাহিত হচ্ছে। কুশিয়ারাতেও জল উল্লেখযোগ্য হারে কমেছে।


সিলেট জল উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আসিফ আহমেদ বলেন, বৃষ্টির না থাকায় ধীরে ধীরে জল নামছে। কয়েকদিনের মধ্যে বৃষ্টি না হলে জল আরও কমবে। তবে আগামী মাসের শেষের দিকে বৃষ্টি হতে পারে বলেও জানান তিনি।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad