"মা-বাবা আমাকে ক্ষমা করো"- হোয়াটসঅ্যাপ স্ট্যাটাস দিয়েই যমুনায় ঝাঁপ যুবকের - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Monday, 1 August 2022

"মা-বাবা আমাকে ক্ষমা করো"- হোয়াটসঅ্যাপ স্ট্যাটাস দিয়েই যমুনায় ঝাঁপ যুবকের


চাকরি না পেয়ে হতাশ, যমুনা নদীতে মারণ ঝাঁপ যুবকের। এই কাণ্ড ঘটানোর আগে তার হোয়াটসঅ্যাপ স্ট্যাটাসে একটি সুইসাইড নোটও লিখেছিলেন ওই যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে, রবিবার রাতে উত্তরপ্রদেশের আগ্রা জেলায়। জানা গিয়েছে, যুবক ভারতীয় সেনাবাহিনীতে নিয়োগের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। চাকরি না পাওয়ায় তিনি দীর্ঘদিন ধরে হতাশায় ভুগছিলেন। তাঁর যমুনায় ঝাঁপ দেওয়ার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছে যায় পুলিশ। বর্তমানে যমুনায় তাঁর খোঁজে ডুবুরি তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। 


মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী, ঘটনাটি নিউ আগ্রা থানা এলাকার। নাগলা তালফির বাসিন্দা মৃত যুবক রবিবার গভীর রাতে যমুনা নদীতে ঝাঁপ দেন। পুলিশ বলছে, যুবক করমবীর সিং পাউনিয়া দীর্ঘদিন ধরে সেনাবাহিনীতে নিয়োগের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। এমন পরিস্থিতিতে চাকরি না পাওয়ায় হতাশ ছিলেন ওই যুবক। তিনি যমুনায় ঝাঁপ দেওয়ার আগে হোয়াটসঅ্যাপ স্ট্যাটাসও আপডেট করেছিলেন, যেখানে আত্মহত্যার বিষয়ে একটি নোট লেখা ছিল।


করমবীর সুইসাইড নোটে লেখেন, "মা-বাবা, তোমরা আমাকে ক্ষমা করো, আমি সরকারি চাকরি করতে পারিনি। সেজন্য আমি আমার জীবন দিচ্ছি।"  পুলিশ জানায়, এদিন ডুবুরিদের ডাকা হলেও রাতের আঁধারের কারণে তার সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। সোমবার ফের তল্লাশি শুরু করা হয়েছে ওই যুবকের। ঘটনাস্থলে ভিড় জমিয়েছেন বিপুল সংখ্যক গ্রামবাসী। পরিবারের ওপর ভেঙে পড়েছে দুঃখের পাহাড়।


এ ক্ষেত্রে আগ্রা পুলিশ বলছে, যে যুবক যমুনা নদীতে ঝাঁপ দিয়েছে তিনি সাঁতার জানেন না। পুলিশ তার দেহ উদ্ধারের জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করছে। রবিবার রাতে ঘন অন্ধকারের কারণে তাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। এমন পরিস্থিতিতে এদিন সকাল থেকেই তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ ও ডুবুরিদের দল।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad