১০ দিন পর হবে রানি এলিজাবেথের শেষকৃত্য, জেনে নিন নতুন উত্তরাধিকারী নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া কী? - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Thursday, 15 September 2022

১০ দিন পর হবে রানি এলিজাবেথের শেষকৃত্য, জেনে নিন নতুন উত্তরাধিকারী নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া কী?


রানির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া তার মৃত্যুর ১০ দিন পরে অনুষ্ঠিত হবে।  এর আগে, তার মৃত্যুর পাঁচ দিন পর তার কফিন লন্ডন থেকে বাকিংহাম প্যালেস থেকে ওয়েস্টমিনস্টারের প্রাসাদে একটি আনুষ্ঠানিক পথের মাধ্যমে বহন করা হবে।

বাকিংহাম প্যালেস থেকে কফিনটি পাঁচ দিন পর ওয়েস্টমিনস্টারের প্রাসাদে নিয়ে যাওয়া হবে ।অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার পরে, রানীকে উইন্ডসর ক্যাসেলের কিং জর্জ ষষ্ঠ মেমোরিয়াল চ্যাপেলে সমাহিত করা হবে। রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ ৭০ বছর ধরে ব্রিটেন শাসন করেছেন। রানির অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া তার মৃত্যুর ১০ দিন পরে অনুষ্ঠিত হবে।  এর আগে, তার মৃত্যুর পাঁচ দিন পর তার কফিন লন্ডন থেকে বাকিংহাম প্যালেস থেকে ওয়েস্টমিনস্টারের প্রাসাদে একটি আনুষ্ঠানিক পথের মাধ্যমে বহন করা হবে।  এ সময় মানুষ তাদের শেষ দর্শন করতে পারবে।  ভেন্যুটি ২৩ ঘন্টা খোলা থাকবে।  শেষকৃত্যের দিনটি হবে জাতীয় শোক দিবস।  যেখানে ওয়েস্টমিনস্টার অ্যাবেতে একটি পরিষেবা এবং বিকালে যুক্তরাজ্য জুড়ে দুই মিনিটের নীরবতা থাকবে।  অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ার পরে, রানীকে উইন্ডসর ক্যাসেলের রাজা জর্জ ষষ্ঠ মেমোরিয়াল চ্যাপেলে সমাহিত করা হবে।


রাণীর মৃত্যুর পর প্রক্রিয়া কি?


 তথ্য অনুযায়ী, রানীর মৃত্যুর পর নতুন প্রধানমন্ত্রী হওয়া লিজ ট্রাসকে ফোনে জানানো হয়।  এর পর রাজপরিবার সব প্রস্তুতির মধ্যেই রানির চোখ বন্ধ করে।  এরপর প্রিন্স চার্লসকে নতুন রাজা ঘোষণা করা হয়।  তবে প্রিন্স চার্লসের আনুষ্ঠানিক রাজ্যাভিষেক পরবর্তীতে হবে।  এদিকে রাজা চার্লসকে নতুন রাজা ঘোষণা করা হলে তার পরিবারের সকল সদস্য তার হাতে চুম্বন করে তাকে ধন্যবাদ জানাবে।  একই সঙ্গে রানির মৃত্যু সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য প্রধানমন্ত্রীর পর গভর্নর জেনারেল, রাষ্ট্রদূতকে দেওয়া হয়।


মৃত্যুর বিষয়ে প্রথম বিবৃতি জারি করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

 রাজপ্রমুখের মৃত্যুতে নিয়ম অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীকে প্রথম বিবৃতি দিতে হয়।  এই ঐতিহ্যের অধীনে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী লিজ ট্রাস তার প্রথম বিবৃতি জারি করেন।  এতে তিনি রানীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, 'প্রয়াত রানী একটি মহান উত্তরাধিকার রেখে গেছেন।  তিনি দেশকে স্থিতিশীলতা ও শক্তিও দিয়েছেন।  তিনি বলেন, রানির মৃত্যুতে ব্রিটেন শোকাহত।  তিনি ছিলেন একটি পাথরের মতো যার উপর আধুনিক ব্রিটেন নির্মিত হয়েছিল।” প্রধানমন্ত্রীর পরে অন্য সমস্ত মন্ত্রীদের অপেক্ষা করতে বলা হয়।  এরপর টেলিভিশনে জাতির উদ্দেশে শোকবার্তা হিসেবে প্রিন্স চার্লসের ভাষণের তথ্যও গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।  এরপর তিনি স্কটল্যান্ড, উত্তর আয়ারল্যান্ড এবং ওয়েলসে পার্লামেন্টে ভ্রমণ এবং স্মৃতিসৌধে যোগদানের জন্য একটি সফর শেষ করবেন।  একই সঙ্গে রানির সম্মানে বন্দুকের স্যালুটের ব্যবস্থা করবে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।


 বাকিংহাম প্যালেসের গেটে একটি নোটিশ দেওয়া হবে


 ব্রিটেনের রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথের মৃত্যুর পর বাকিংহাম প্রাসাদের মূল প্রবেশদ্বারে শোকের পোশাক পরা একজন দাস দাঁড়াবেন।  তিনি দরজায় নোটিশ দেবেন।  তার মৃত্যুর পর, যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট, স্কটল্যান্ড, ওয়েলস এবং উত্তর আয়ারল্যান্ডের সংসদ স্থগিত করা হবে।  সংসদ না হলে ডাকা হবে।  এ সময় রাজপ্রাসাদের ওয়েবসাইট শোকবার্তায় পরিণত হবে।  সব সরকারি ওয়েবসাইট কালো ব্যানার সহ প্রদর্শিত হবে। তার মৃত্যুর পরপরই, যুক্তরাজ্যের বেশিরভাগ ওয়েবসাইটে কালো ব্যানার দেখা দিতে শুরু করে।  মানুষ রাস্তায় নেমে চোখের জলে তাদের দুঃখ প্রকাশ করে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad