ঘন কুয়াশার দাপট! ব্যাহত বিমান পরিষেবা, চরম ভোগান্তিতে যাত্রীরা - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Tuesday, 27 December 2022

ঘন কুয়াশার দাপট! ব্যাহত বিমান পরিষেবা, চরম ভোগান্তিতে যাত্রীরা


উত্তরবঙ্গে খারাপ আবহাওয়ার কারণে বাগডোগরা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অনেক ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। পাশাপাশি অনেক ফ্লাইট ডাইভার্টও করা হয়েছে। ফলত চরম বিপাকে পড়তে হয় যাত্রীদের। মঙ্গলবার সকাল থেকেই আকাশ ছিল মেঘলা, চারিদিক ঘন কুয়াশাচ্ছন্ন। দৃশ্যমানতা কম থাকায় বাগডোগরা বিমানবন্দরে বেশ কয়েকটি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। সকাল থেকে প্রায় সাতটি ফ্লাইট বাগডোগরার পরিবর্তে অন্য বিমানবন্দরে ডাইভার্ট করা হয়েছে। বাগডোগরার দমদম বিমানবন্দরে অবতরণ করানো হয় ফ্লাইটগুলো। সূত্রের খবর, খারাপ আবহাওয়ার কারণে চারটি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।


দুপুর দেড়টার পর আবহাওয়া স্বাভাবিক হয়। এর পরে দমদম বিমানবন্দরের দিকে যাওয়া বিমানগুলি একে একে বাগডোগরায় অবতরণ করে। 


বিমানবন্দরের পরিচালক সুব্রহ্মণ পি বলেন, "দুপুর ১টার পর থেকে বিমানের অবতরণ শুরু হয়। তবে এ পর্যন্ত চারটি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। যদিও বাতিল হওয়া ফ্লাইটের তালিকা সন্ধ্যার আগে বলা সম্ভব নয়। ডিসেম্বরের শেষ দিকে উত্তরবঙ্গ ঢেকেছে ঘন কুয়াশায়।  কুয়াশার দাপট এতটাই যে, আশেপাশের বস্তুগুলোও ঠিকমতো দেখা যায় না। এদিন সকাল থেকে অনেক বিমান টেক অফ করতে পারেনি। তবে সন্ধ্যার পর পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হয়।"



তবে, সূত্রের খবর ভিস্তারা ফ্লাইট দিল্লী-ডিব্রুগড়-বাগডোগরা, ইন্ডিগো এয়ারলাইন্স ব্যাঙ্গালোর-বাগডোগরা-ব্যাঙ্গালোর এবং ইন্ডিগো এয়ারলাইন্স হায়দ্রাবাদ-বাগডোগরা-হায়দরাবাদের আরেকটি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। সূত্রের খবর, বাগডোগরা পৌঁছনো অনেক ফ্লাইট সময়মতো বাগডোগরায় নামতে পারেনি। তবে ওয়াকিবহাল সূত্রে জানা গেছে, শীতকালে বাগডোগরায় ঘন কুয়াশার কারণে দৃশ্যমানতা কমে যাওয়া স্বাভাবিক। মাঝেমধ্যেই এটা ঘটে। এ কারণেই এদিনও ফ্লাইট বাতিল করতে বাধ্য হচ্ছে কর্তৃপক্ষ। মূলত যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং ঝুঁকি এড়াতে এসব ফ্লাইট বাতিল করা হয়।


প্রসঙ্গত, প্রতি বছর শীতকালে ঘন কুয়াশার কারণে শুধু ফ্লাইটই বাতিল হয় না, রেল যোগাযোগও বিঘ্নিত হয়। এবারও তার ব্যাতিক্রম হয়নি। এ বছরও শীতে ট্রেন চলাচল ব্যাহত হতে শুরু করেছে। এদিন সকালে এনজেপি থেকে অনেক ট্রেন সময়মতো চলছে না। অনেক ট্রেনের গতি কমে গেছে, এ কারণে দূরপাল্লার ট্রেন সময়মতো স্টেশনে পৌঁছাচ্ছে না। ভোরে ট্রেন চলাচল বিঘ্নিত হওয়ায় পরবর্তীতে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক করা কঠিন হয়ে পড়ছে। বিভিন্ন স্টেশনে ট্রেন দাঁড়িয়ে আছে। এক্ষেত্রেও যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য জোর দিচ্ছেন রেলের কর্তারা।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad