সারাদিন তরতাজা থাকতে সকালে জলখাবারে রাখুন ওটস - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Saturday, 21 January 2023

সারাদিন তরতাজা থাকতে সকালে জলখাবারে রাখুন ওটস

 







ব্যস্ততার কারণে মানুষ অস্বাস্থ্যকর জীবনযাপন করছে। এমন পরিস্থিতিতে মানুষ নিজেকে সুস্থ রাখতে তাদের জীবনযাত্রায় কিছু প্রয়োজনীয় এবং ভাল পরিবর্তন করেছে। যেমন আজকাল মানুষ তাদের খাবারের ব্যাপারে খুবই সতর্ক হয়ে উঠেছে। দৌড়ের মাঝে নিজেকে ফিট রাখতে বেশির ভাগ মানুষই স্বাস্থ্যকর খাবার খাচ্ছেন। ওটস এই স্বাস্থ্যকর খাদ্য আইটেমগুলির মধ্যে একটি । আপনিও যদি সকালের জলখাবারে ওটস খেতে পছন্দ করেন, তাহলে আজ আমরা আপনাকে এর অনেক উপকারিতা সম্পর্কে বলব যা আপনি কমই জানেন।



ডায়াবেটিসে কার্যকর:

ওটস খাওয়ার অনেক উপকারিতা রয়েছে, তবে খুব কম মানুষই জানেন যে ওটস ডায়াবেটিস রোগীদের জন্যও খুব উপকারী। যারা চিনির সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য এর সেবন খুবই উপকারী। ওটস খেলে শরীরে ব্লাড সুগারের মাত্রা কমে যা ডায়াবেটিস রোগীদের উপকারে আসে। এছাড়া সকালের নাস্তায় ওটস খেলেও দ্রুত ক্ষুধা লাগে।


হৃদরোগ থেকে রক্ষা করে:

যারা নিয়মিত ওটস খান তাদের হার্ট সংক্রান্ত রোগের ঝুঁকিও অনেক কম। এতে উপস্থিত 'বিটা গ্লুকান' ফাইবার খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে খুবই সহায়ক। শুধু তাই নয় ওটসে পাওয়া অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট অ্যাভেনেথ্রামাইডস এলডিএল কোলেস্টেরল থেকে ফ্রি র‌্যাডিক্যালকে রক্ষা করে, যা হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা কমায়।



উচ্চ রক্তচাপে কার্যকর:

যাদের উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা রয়েছে, তাদের জন্য ওটস খুবই উপকারী। যারা নিয়মিত ওটস খান তাদের রক্তচাপ সংক্রান্ত সমস্যা কম হয়। এছাড়াও এতে উপস্থিত ফাইবার উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা কমাতে সহায়ক।



ত্বকের জন্য উপকারী:

শরীর সুস্থ রাখার পাশাপাশি ওটস আমাদের ত্বককেও অনেক উপকার করে। ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে ওটস খুবই সহায়ক। যদি আপনার ত্বকের শুষ্কতা, খোসা ছাড়ানো বা জ্বালাপোড়াই একমাত্র সমস্যা হয়, তাহলে কাঁচা দুধে ওটস মিশিয়ে ত্বকে লাগালে উপকার পাওয়া যায়।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad