ভাঙর সংঘর্ষের পর উদ্ধার বোমা, গ্রেফতার ৩ আইএসএফ সমর্থক - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Sunday, 22 January 2023

ভাঙর সংঘর্ষের পর উদ্ধার বোমা, গ্রেফতার ৩ আইএসএফ সমর্থক

 


ভাঙরে তৃণমূল কংগ্রেস এবং ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট (আইএসএফ) সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ।  এরপর সন্ধ্যায় কলকাতায় আইএসএফ-এর সমর্থকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।  সেই ক্ষেত্রে, পুলিশ আইএসএফ-এর প্রায় 100 সমর্থককে গ্রেপ্তার করেছে এবং এখন রবিবার ভাঙরে উদ্ধার বোমা।  তৃণমূল নেতা আরাউল ইসলামের বাড়ির কাছে এই বোমাগুলি উদ্ধার করা হয়েছে।  এই ঘটনায় তিন আইএসএফ সমর্থককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।



 পুলিশের কাছ থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, ভাঙরের উত্তর গাজিপুরে কৃষি জমি থেকে একটি বোমা উদ্ধার করা হয়েছে।  তৃণমূল নেতা আরাবুল ইসলামের বাড়ির পেছন থেকে বোমা উদ্ধার হতেই গোটা এলাকায় নতুন করে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।  উদ্ধার করা হয়েছে একটি পিস্তল।



ঘটনার বিষয়ে আরাবুল ইসলামের ছেলে হাকিবুল ইসলাম বলেন, “গত রাতে আইএসএফ সদস্যরা বোমা ও বন্দুক নিয়ে বসে ছিল।  তৃণমূল কর্মীদের উপর হামলার ষড়যন্ত্র চলছে, কিন্তু সাধারণ মানুষ ইতিমধ্যেই সেই খবর পেয়ে গিয়েছে।" তিনি পুলিশকে খবর দেন।  পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে বোমাটি উদ্ধার করেছে।  এর পরই একদিন আগে যারা এখানে গুলি চালিয়ে অশান্তি ছড়ায় তাদের তিনজনকে ধরা হয়েছে।



 অন্যদিকে, শনিবার ধর্মতলায় এসএফআই ও তৃণমূল সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় রাজনৈতিক তোলপাড় শুরু হয়েছে।  ISF বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকীর ওপর তৃণমূলের হামলার প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ করতে শুরু করেছিল ISF জওয়ানরা।  এরপরই পুলিশের সঙ্গে আইএসএফ সমর্থকদের সংঘর্ষ শুরু হয়।  সেখানে আইএসএফ নেতা নওশাদসহ 19 আইএসএফ কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়।  তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ।  সূত্রের খবর, এতে অনেক অজামিনযোগ্য ধারাও রয়েছে।



 অন্যদিকে, ধর্মতলা থেকে ভাঙরে ফেরার সময় পুলিশ প্রায় 100 ISF কর্মী-সমর্থককে গ্রেপ্তার করেছে।  এদিকে বোমা উদ্ধারের ঘটনায় নতুন করে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।  অন্যদিকে, CPI(M) রাজ্য সম্পাদক মহম্মদ সেলিম ISF সমর্থকদের উপর লাঠিচার্জের নিন্দা করেছেন এবং এর বিরুদ্ধে CPI(M) রবিবার প্রতিবাদ ঘোষণা করেছে।  এ নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসকে নিশানা করেছে বিজেপি ও কংগ্রেসও।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad