নাবালিকার সঙ্গে কুকর্ম অঞ্চল সভাপতির! শাসককে নিশানা বিজেপির - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Monday, 23 January 2023

নাবালিকার সঙ্গে কুকর্ম অঞ্চল সভাপতির! শাসককে নিশানা বিজেপির


নাবালিকাকে যৌন হেনস্তার অভিযোগ উঠল গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রাক্তন প্রধান তথা অঞ্চল সভাপতি অনিমেষ বাইনের বিরুদ্ধে। ঘটনা উত্তর ২৪ পরগনার বাগদা থানা এলাকার হেলেঞ্চার। ঘটনা ঘিরে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। তৃণমূলের দাবী, তিনি দীর্ঘদিন দলের কোনও কাজের সঙ্গে যুক্ত নয়, অনেক আগেই তাঁকে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। 'মুখ রক্ষার কথা না বললেই ভালো, শাসক দলকে কটাক্ষ বিজেপির।  


এদিকে অনিমেষ আইনের বিরুদ্ধে নাবালিকার পরিবারের পক্ষ থেকে বাগদা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগ পেয়েই পকসো আইনে মামলা রুজু করে অভিযুক্তর খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে বাগদা থানার পুলিশ। হেলেঞ্চা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রাক্তন প্রধানের বাড়িতে গিয়েও তার খোঁজ মেলেনি। 



নাবালিকাকে যৌন হেনস্তা প্রসঙ্গে বাগদা পশ্চিম ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অঘোরচন্দ্র হালদার বলেন, 'হেলেঞ্চা অঞ্চলের বর্তমান যিনি সভাপতি ছিলেন অনিমেষ বাইন, তিনি দীর্ঘদিন দলের কোনও কাজের সঙ্গে যুক্ত নয়, জেলা সভাপতিকে আমি একথা জানিয়েছিলাম। পরবর্তীকালে তাঁর নির্দেশ মত আমরা ২৯/১২/২০২২ তাকে (অনিমেষ) সরিয়ে দিয়েছি। তার বিরুদ্ধে একটা অভিযোগ উঠেছে।‌ সেক্ষেত্রে আইন আইনের পথে চলবে। আমরা আগেই তাকে সরিয়ে দিয়েছি এবং তাকে দলীয় কোনও অনুষ্ঠানেও ডাকব না, যতক্ষণ তিনি নির্দোষ প্রমাণিত না হচ্ছেন।' 


পাশাপাশি তিনি আরও বলেন, 'এটা তার ব্যক্তিগত রুচির ব্যাপার। যা মনে করেছেন, তিনি করেছেন। দল ইতিমধ্যেই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে, আমি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ; জেলা সভাপতিকে জানিয়েছি, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের অফিসেও জানিয়েছি। আইন আইনের পথে চলবে।' 


অপরদিকে এই বিষয়ে বিজেপির রাজ্য উদ্বাস্তু সেলের কো-কনভেনার শিশির হাওলাদার বলেন, 'পকসো আইনে যে সাজা হওয়া উচিৎ, সেটা তো আইন মোতাবেক হবেই। কিন্তু আমাদের মনে হয় না, আগে ওনাকে সাসপেনশন লেটার দিয়েছিলেন।' বিজেপি নেতা বলেন, সর্বস্তরে কলঙ্ক হতে হতে একেবারে নিম্নস্তরে পৌঁছে গেছে, তার বাইরে অনিমেষ বাবুও নয়, হেলেঞ্চা অঞ্চলও নয়। অনিমেষ বাবু দলীয় কাজকর্ম দীর্ঘদিন করছেন, তৃণমূলের হয়ে প্রচার করছেন আমরা তো দেখছি, কবে সাসপেন্ড করলেন! মুখ রক্ষার কথা না বললেই ভালো হয়, অঞ্চলের মানুষ সবটাই জানে।' 


কটাক্ষের সুরে তিনি আরও বলেন, 'ওদের নেতৃত্ব-ব্যক্তিত্ব কিছু আছে বলে তো আমাদের ভারতীয় জনতা পার্টির মনে হয় না। রাজ্য থেকে বুথ স্তর পর্যন্ত তৃণমূলের বেশিরভাগ নেতা-কর্মী দুর্নীতিগ্ৰস্থ; জেল খাটছে শিক্ষা দফতর থেকে বিভিন্ন স্তর পর্যন্ত। এদের সম্বন্ধে আর কী বলব!' 

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad