'কোনও মেয়েই মিথ্যা ধ-র্ষণের মামলা করে না': আদালত - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Friday 20 October 2023

'কোনও মেয়েই মিথ্যা ধ-র্ষণের মামলা করে না': আদালত

 


'কোনও মেয়েই মিথ্যা ধ-র্ষণের মামলা করে না': আদালত




প্রেসকার্ড নিউজ ন্যাশনাল ডেস্ক, ২০ অক্টোবর: 'কোনও মেয়েই মিথ্যা ধর্ষণের মামলা করে না', এই মন্তব্য মুম্বাইয়ের বিশেষ পকসো (POCSO) আদালতের। আদালত বলেছে যে, কোনও ভারতীয় মেয়ে ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ করবে না, কারণ যদি সে মিথ্যা প্রমাণিত হয় তবে তাকে সারাজীবন অবজ্ঞার চোখে দেখা হবে এবং বিশেষ করে অবিবাহিত মেয়ে বিয়ের সময় বিভিন্ন সমস্যার মুখোমুখি হতে পারে। ২০২১ সালে, এক ২১ বছর বয়সী ছেলেকে তার প্রতিবেশীর একটি ১৬ বছর বয়সী মেয়েকে যৌন নির্যাতনের জন্য ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।


বিশেষ বিচারক এস এম টাকলিকার বলেছেন, যদি তিনি মিথ্যাবাদী বলে প্রমাণিত হন, তাহলে তাকে সারাজীবন সমাজ হেয় দৃষ্টিতে দেখবে। বিশেষ করে, অবিবাহিত মেয়ের পক্ষে উপযুক্ত বর খুঁজে পাওয়া কঠিন হবে। অতএব, বাস্তবে যতক্ষণ না কোনও অপরাধ সংঘটিত হয়, একজন মেয়ে তা মেনে নিতে একেবারেই অনিচ্ছুক হবে যে, বাস্তবে এমন কোনও ঘটনা ঘটেছে, যেটা তার সতীত্বকে প্রভাবিত করতে পারে। সে সমাজের দ্বারা বহিষ্কৃত হওয়ার বিপদ সম্পর্কে সচেতন হবে। বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর গীতা মালাঙ্কারের পরীক্ষা করা সাক্ষীদের একজন ছিলেন মেয়েটি।


বিচারক বলেন, ভুক্তভোগীর মিথ্যা সাক্ষ্য দেওয়ার এবং অভিযুক্তকে ফাঁসানোর কোনও কারণ নেই। দেখা গেছে, বিপরীতে অভিযুক্ত ব্যক্তি ভিকটিমের ভালো বন্ধু। বিচারক বলেন, 'এ ছাড়া অভিযুক্তের সঙ্গে ভিকটিমের কোনও শত্রুতা নেই। কেন তিনি অভিযুক্তের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিচ্ছেন সে বিষয়ে কিছুই রেকর্ডে আনা হয়নি। তাই ভুক্তভোগীর এই প্রমাণ অভিযুক্ত তাকে ধর্ষণ করেছে, নির্ভরযোগ্য মনে হয় এবং আত্মবিশ্বাস জাগায়।'


বিচারক বলেন, 'তর্কের খাতিরে যদি ধরে নেওয়া হয় যে অভিযুক্ত ও মেয়ের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক আছে, তাহলেও কি মেয়েটিকে যৌন নিপীড়নের অধিকার ছেলেকে দেয়?' বিচারক বলেন, 'অভিযুক্তের ক্ষেত্রে সম্পর্ক সম্মতিপূর্ণ ছিল না। তাই নিছকই প্রেমের বিষয়টি অস্বীকার করেছেন নির্যাতিতা। তার সাক্ষ্য ভুল প্রমাণিত করে না।'


বিচারক আরও বলেন, 'তার প্রমাণ মেডিক্যাল সাক্ষ্য দ্বারাও প্রমাণিত।' অভিযুক্তকে ১৬ হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়েছে। একবার জরিমানা আদায় হয়ে গেলে, মেয়েটিকে ক্ষতিপূরণ হিসাবে ১০,০০০ টাকা দিতে হবে। 


উল্লেখ্য, ঘটনাটি ঘটে ১০-১১ মে ২০২১-এর মধ্যবর্তী রাতে, যখন মেয়েটি তার দিদার বাড়িতে ঘুমাতে গিয়েছিল, যা একই পাড়ায় ছিল। তবে মেয়েটি সেখানে না আসায় তার পরিবার তাকে খুঁজতে থাকে। পরদিন সকালে মেয়েটি কাঁদতে কাঁদতে বাড়ি ফিরে আসে। সে তার মাকে জানায় অভিযুক্ত তাকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে যৌন হেনস্থা করে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad