অমিত শাহের বেঙ্গল ভিজিট: মাথাভাঙ্গা থেকে উদ্ধার বোমা - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 4 May 2022

অমিত শাহের বেঙ্গল ভিজিট: মাথাভাঙ্গা থেকে উদ্ধার বোমা



 কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সফরের ঠিক 24 ঘন্টা আগে বুধবার সকালে কোচবিহারের মাথাভাঙ্গা থেকে উদ্ধার বোমা।  এ নিয়ে পুলিশে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।  আগামীকাল 5 মে দুদিনের সফরে বাংলায় আসছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।  দুই দিনের বেঙ্গল ট্যুরের দ্বিতীয় দিনে, 6 মে শুক্রবার কোচবিহারের তিন বিঘা করিডোর পরিদর্শন করার কথা রয়েছে তাঁর।  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরের আগে যখন পুরো এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।  এলাকায় প্রচুর পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে, তবে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে, এলাকায় বোমা উদ্ধারের কারণে পুলিশ বিভাগে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।  পুলিশ পুরো এলাকায় তল্লাশি শুরু করেছে এবং অসামাজিক কার্যকলাপের উপর নজরদারি বাড়ানো হয়েছে।


 বুধবার সকালে, মাথাভাঙ্গা থানার অন্তর্গত হযরত 2 নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের পূর্ব খাতেরবাড়ি এলাকার জঙ্গলে একটি তাজা বোমা সক্রিয় থাকতে দেখেন এলাকার বাসিন্দারা।  খবর পেয়ে মাথাভাঙ্গা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে সর্বশেষ বোমাটি উদ্ধার করে।



 5 মে রাজ্যে আসছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।  তার বেঙ্গল ট্যুরের সময় খুব ব্যস্ত সময়সূচী রয়েছে।  উত্তর চব্বিশ পরগনার সুন্দরবনের বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করবেন তিনি।  নিরাপত্তা কর্মীদের সঙ্গে দুপুরের খাবারও খাবেন।  ওই দিনই বিকেলে শিলিগুড়ি যাবেন তিনি।  সেখানে তিনি শিলিগুড়ি রেল ময়দানে সমাবেশে ভাষণ দেবেন।  5 মে রাতে তিনি শিলিগুড়িতে থাকবেন।  এরপর 6মে সকালে অমিত শাহ তিন বিঘা করিডোর পরিদর্শন করবেন।  6 তারিখ সকালে বাগডোগরা থেকে হেলিকপ্টারে করে সেখানে পৌঁছাবেন তিনি।  তিন বিঘায় বিএসএফ আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি।

 



 তিন বিঘা করিডোর নিয়ে 2011 সালের সেপ্টেম্বরে ঢাকায় একটি চুক্তি হয়।  ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।  এই চুক্তির আওতায় ভারত 178 x 85 বর্গমিটারের একটি জমি বাংলাদেশকে 99 বছরের জন্য লিজে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।  তবে কোনও বিধিনিষেধ ছাড়াই তিন বিঘা করিডোর দিয়ে বাংলাদেশীদের চলাচলে সন্তুষ্ট নয় ওই অঞ্চলের ভারতীয় জনগণ।  বিশেষ করে তিন বিঘা করিডোর দিয়ে বাংলাদেশীদের যাতায়াতের সময় বেশি সমস্যায় পড়তে হয় কুখলীবাড়ি এলাকার বাসিন্দাদের।  তিন বিঘা আন্দোলনে নিহত দুই আন্দোলনকারীর স্মরণে প্রতি বছর 26 জুন ভারতীয়রা শহীদ দিবস পালন করে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad