যোধপুর সহিংসতা: গ্রেফতার ৯৭, তদন্ত শুরুর দাবী বিজেপির - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 4 May 2022

যোধপুর সহিংসতা: গ্রেফতার ৯৭, তদন্ত শুরুর দাবী বিজেপির



 রাজস্থান বিজেপির সভাপতি সতীশ পুনিয়া যোধপুরের সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিষয়ে রাজ্যপাল কালরাজ মিশ্রকে একটি চিঠি লিখেছেন এবং একটি সুষ্ঠু তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন।  পাশাপাশি রাজ্যে যাতে আইনশৃঙ্খলা বজায় থাকে সেজন্য নির্দেশনা দেওয়ারও আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।


 চিঠিতে তিনি লিখেছেন, যোধপুরের সহিংসতার সুষ্ঠু তদন্ত করার জন্য বিনীতভাবে অনুরোধ করছি।  রাজ্য সরকারকে প্রয়োজনীয় নির্দেশিকা জারি করা উচিৎ যাতে রাজ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠা করা যায় এবং রাজস্থানে সাম্প্রদায়িক ঘটনা না ঘটে।  এছাড়াও এই ঘটনার সাথে জড়িত বিশৃঙ্খল উপাদানের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে।


 

 বিজেপি নেতা সতীশ পুনিয়া এখানেই থেমে থাকেননি, তিনি আরও বলেন যে "কংগ্রেস সরকার রাজস্থানে তুষ্টির রাজনীতি করছে এবং রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা একটি বড় চ্যালেঞ্জ রয়ে গেছে।  তুষ্টির রাজনীতির কারণেই রাজ্যের পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে যা সত্যিই উদ্বেগজনক।  মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।  রাজ্যের অহংকারও ঝুঁকিতে ফেলেছিল কংগ্রেস।"  তিনি বলেন, "নিজের চেয়ার নিয়ে চিন্তা না করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর উচিৎ রাজ্যের মানুষের কথা চিন্তা করা।"


 এই সবের মধ্যেই, যোধপুরে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার অভিযোগে পুলিশ ৯৭ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।  এছাড়াও ঘটনার পর জেলায় ইন্টারনেট পরিষেবাও বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং পুলিশ ১০টি থানার অধীনে কারফিউ জারি করতে বাধ্য হয়।


 

 তাই যোধপুরের সহিংসতার জন্য বিজেপিকে দায়ী করেছে কংগ্রেস।  রাজ্য সরকারের মন্ত্রী প্রতাপ সিং বলেছেন যে এই সহিংসতা পূর্ব পরিকল্পিত এবং এর পিছনে রয়েছে বিজেপি এবং আরএসএস।  তার একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় রয়েছে যাতে তিনি এ কথা বলেছেন।  তিনি বলেন, "রাজস্থানে মন্দির ও মসজিদের মধ্যে কোনও বিরোধ নেই।  এখানে লাউডস্পিকার ও বুলডোজারের মধ্যে কোনও বিরোধ নেই।  ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে যারা অপকর্ম করবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।"

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad