জেনে নিন অবাঞ্ছিত লোম দূর করার নিরাপদ উপায় - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Sunday, 22 May 2022

জেনে নিন অবাঞ্ছিত লোম দূর করার নিরাপদ উপায়


পুরুষ এবং মহিলাদের মধ্যে একটি সাধারণ পার্থক্য হল মুখের চুল। আর এটা হয় পুরুষ হরমোন অর্থাৎ টেস্টোস্টেরনের কারণে। যদিও আমাদের সবার ত্বকে ফাইবারের মতো সূক্ষ্ম চুল থাকে। কিন্তু হরমোনের ভারসাম্যহীনতার কারণে অনেক সময় মহিলাদের মুখেও পুরুষের মতো চুল দেখা যায়। এতে যে কারো মন খারাপ হওয়াটাই স্বাভাবিক। কিন্তু চিন্তা করবেন না, কারণ আমাদের একজন বিশেষজ্ঞ এই অবাঞ্ছিত লোম দূর করার নিরাপদ উপায় সম্পর্কে কথা বলেছেন। তবে তার আগে জেনে নেওয়া যাক অবাঞ্ছিত লোম সম্পর্কে সবকিছু।


অবাঞ্ছিত চুল নিয়ে কথা বলতে আমাদের সাথে যুক্ত হলেন প্রখ্যাত চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ নিবেদিতা দাদু। তিনি নিজেই ডাঃ নিবেদিতা দাদু চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ ক্লিনিকের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান। আসুন তাদের কাছ থেকে জেনে নিই অবাঞ্ছিত লোম সংক্রান্ত সম্পূর্ণ তথ্যের পাশাপাশি তা দূর করার সহজ উপায়।


প্রথমে জেনে নিন অবাঞ্ছিত লোম কি

চুল আমাদেরকে সুন্দর দেখাতে সাহায্য করে, কিন্তু অবাঞ্ছিত চুল ঠিক উল্টো করে। অবাঞ্ছিত লোম আমাদের চিবুক, মুখের বিভিন্ন অংশ এবং শরীরের বাকি অংশে গজায়।

এটি প্রধানত দুই প্রকার। প্রথমটি হল শক্ত কালো মোটা লোম বা টার্মিনাল চুল যা সাধারণত চিবুক এবং শরীরের বাকি অংশে বৃদ্ধি পায়। অন্যান্য সূক্ষ্ম, নরম চুল বা সুস্থ চুল যা সাধারণত গালের হাড়ে গজায়।

 

টার্মিনাল চুল

এই কারণে অনেক সময় আমরা আমাদের চেহারা নিয়ে অস্বস্তি বোধ করি। একবার ত্বক থেকে সরানো হলে, এই চুলগুলি সুস্থ চুলের চেয়ে দ্রুত বৃদ্ধি পায়। অতএব, তাদের অপসারণ করতে বিভিন্ন ধরনের কৌশল ব্যবহার করা হয়। ব্যবহৃত কৌশলটি চুলের ফলিকল দীর্ঘমেয়াদী অপসারণের যত্ন নেয়। তাই এই লোমগুলোকে গোড়া থেকে উপড়ে ফেলার চেষ্টা করা হয়। যাতে চুলে পুষ্টি জোগায় লোমকূপ দূর করা যায়।


সুস্থতা চুল বা সূক্ষ্ম নরম চুল

এই লোম একবার তুলে ফেললে আর দ্রুত বাড়ে না। তাই, এটি অপসারণের জন্য সহজ পদ্ধতি ব্যবহার করে উপরে থেকে চিকিত্সা দেওয়া হয়।


এখানে অবাঞ্ছিত লোম দূর করার বিভিন্ন উপায় রয়েছে


এপিলেটর

এপিলেটর একটি ছোট ইলেকট্রনিক ডিভাইস, যা সহজেই এর প্যাকেট, ব্যাগে বহন করা যায়। যেসব জায়গায় টার্মিনাল লোম হাত, পায়ে, তাদের উপরের পৃষ্ঠে গজায়, সেগুলিকে 90 ডিগ্রি কোণে সোজা এবং মোচড় দিন। এতে করে সেখানকার চুল সহজেই কুঁচকে যায়। এভাবে 2 থেকে 4 সপ্তাহের জন্য সারফেস চুল মুক্ত হয়ে যায়।


চুল অপসারণ লেজার

আজকাল লেজার লাইট চুল অপসারণের জন্যও ব্যবহার করা হয়। এই কৌশলটি এপিলেটর কৌশল থেকে অনেক ভালো। এতে একজন চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের সাহায্য নেওয়া হয় এবং এটি একবার বা দুবার করার পরে আরও ভাল ফলাফল দেখাতে শুরু করে। এতেও লোমকূপ দূর হয়। এর পর ত্বকে অনেকক্ষণ চুল দেখা যায় না।


যাদের মুখে এবং শরীরের অন্যান্য অংশে অবাঞ্ছিত লোমের আকারে সূক্ষ্ম-নরম লোম রয়েছে তাদের থেকে মুক্তি পাওয়ার অনেক সহজ উপায় রয়েছে –


ট্রিমার

এটি একটি যন্ত্র, যা আকারে একটি কলম বা টুথব্রাশের মতো। আমরা আমাদের পার্স, ব্যাগ এবং অন্যদের মধ্যে রেখে সহজেই এই ট্রিমারটি বহন করতে পারি। আপনি সারাদিন যেকোন সময় এই যন্ত্রটি ব্যবহার করে ত্বক থেকে আপনার সূক্ষ্ম-নরম চুল মুছে ফেলতে পারেন। যদিও আমরা সবাই জানি যে টার্মিনাল চুলের তুলনায় এই চুলগুলি ফিরে আসতে অনেক সময় নেয়।


ডার্মাপ্ল্যানিং

ট্রিমার থেকে আরও ভাল ফলাফল পেতে আপনি একজন চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের সাহায্যে ডার্মাপ্ল্যানিং করাতে পারেন। এতে, স্ক্যাল্পেলের সাহায্যে, ত্বকে উপস্থিত সূক্ষ্ম নরম চুলগুলিকে পৃষ্ঠ থেকে সরিয়ে ফেলার কাজ করা হয়। এর পাশাপাশি ত্বকের মরা কোষ দূর করে বিগড়ে যাওয়া ত্বকের টোন ফিরিয়ে আনার কাজও করা হয়। চর্মরোগ বিশেষজ্ঞরা ত্বক থেকে সূক্ষ্ম নরম চুলের পাশাপাশি মৃত রঙ্গক কোষগুলিকে অপসারণের জন্য ডার্মাপ্ল্যানিংয়ে কাজ করেন। এতে করে আমাদের ত্বকের রং উজ্জ্বল হয় এবং কোমল দেখাতে শুরু করে।


আপনি যদি অবাঞ্ছিত লোমে সমস্যায় পড়ে থাকেন, তাহলে চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে যেতে ভুলবেন না। মনে রাখবেন যে হরমোন আপনার মুখ এবং আপনার শরীরের অন্যান্য অংশে অবাঞ্ছিত চুলের বৃদ্ধির জন্য দায়ী।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad