মাদক কারবারির বাড়িতে ভাংচুর! - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Thursday, 12 May 2022

মাদক কারবারির বাড়িতে ভাংচুর!



জলপাইগুড়ি: এক মাদক কারবারির অত্যাচারে অতিষ্ঠ জলপাইগুড়ি পৌরসভার ১১নং ওয়ার্ডের ক্যানেল পাড়ের বাসিন্দারা। অভিযুক্ত যুবকের নাম রোহিত রায় ওরফে গুড্ডু। রোহিতের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বুধবার গভীররাতে স্থানীয় ক্ষিপ্ত বাসিন্দারা অভিযুক্তের বাড়ি ভাংচুর করে রোহিত ও তার মাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়৷ 


স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, রোহিত দীর্ঘদিন থেকে এলাকায় ব্যাপক অত্যাচার চালাচ্ছে৷ বুধবার এলাকায় এক বৃদ্ধ হকার এলে তার কাছ থেকে নেশা করার জন্য টাকা চায় রোহিত। বৃদ্ধ টাকা দিতে রাজি না হওয়ায় তাকে ব্যাপক মারধোর করে রোহিত, বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। 


পাশাপাশি আরও অভিযোগ, রোহিত নিজের বাড়িতে বিভিন্ন মাদক বিক্রি করে এবং সেই মাদক দ্রব্য কিনতে বাইরে থেকে প্রচুর যুবকরা এলাকায় ঠেক বসায়। এতে এলাকার শান্তি শৃঙ্খলা নষ্ট হচ্ছে। এর পরে স্থানীয় বাসিন্দারা ঘটনার প্রতিবাদ করতে গেলে অভিযুক্ত রোহিত স্থানীয় বাসিন্দাদেরও হুমকি দেয়। 


পুলিশকে খবর দেওয়া হলে পুলিশ এলাকায় গিয়ে রোহিত গ্রেফতার করতে পারেনি। এর পরেই বুধবার গভীর রাতে স্থানীয় বাসিন্দারা ক্ষিপ্ত হয়ে রোহিতের বাড়িতে চড়াও হয়। ভাংচুর করা হয় রোহিতের বাড়ি। অভিযুক্ত রোহিত ও তার মাকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয় স্থানীয়দের পক্ষ থেকে৷ 


বর্তমানে এলাকার বাসিন্দারা ব্যাপক আতঙ্কে রয়েছে৷ কারণ এর আগেও রোহিত একাধিক বার গ্রেফতার হয়েছে এবং জেল থেকে মুক্তি পেয়ে এলাকায় এসে ফের তাণ্ডব করেছিল। তাই এলাকার বাসিন্দাদের দাবী এই বার যেন কোনও ভাবেই রোহিত জেল থেকে ছাড়া না পায়।


জলপাইগুড়ি পৌরসভার ভাইস চেয়ারম্যান সৈকত চ্যাটার্জি জানান, 'আমি ঘটনার খবর পাওয়া মাত্রই পুলিশকে বলেছি ব্যবস্থা নিতে৷ এবার জেল থেকে বেরলে আমি রোহিতের পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলে রোহিতকে রিহ্যাব সেন্টারে পাঠানোর ব্যবস্থা করবো। না হলে জেলেই থাকবে।'


এদিকে অভিযুক্ত যুবক রোহিত রায় জানায়, সে মাদক বিক্রি করে না কিন্তু সে মাদক খাওয়ার কথা স্বীকার করে নিয়েছেন। এলাকার বাসিন্দারা মিথ্যা অভিযোগ করছে বলেই দাবী রোহিতের৷

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad