এই দেশে অনুষ্ঠানে দেরিতে পৌঁছলে জানানো হয় সন্মান! - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 1 June 2022

এই দেশে অনুষ্ঠানে দেরিতে পৌঁছলে জানানো হয় সন্মান!

 






অদ্ভুত আচার-অনুষ্ঠানের অনেক অদ্ভুত বিশ্বাস আছে প্রকৃতির তৈরি এই পৃথিবীতে যত দেশ আছে। যেগুলো সম্পর্কে জানলে অনেক সময় অবাক লাগে, আবার এমন কিছু বিশ্বাস আছে যেগুলো নিয়ে আমরা হাসাহাসি করি, কিন্তু তারপরও মানুষ শত শত বছর ধরে এই বিশ্বাসগুলো মেনে চলে।  এমন অনেক দেশ আছে যারা সেই বিশ্বাসগুলো মেনে চলে। আজও একইভাবে অনুসরণ করা হয়।এই পর্বে আজ আমরা আপনাদের এমন একটি দেশের অনন্য বিশ্বাসের কথা বলতে যাচ্ছি।যা জানলে আপনি যেমন অবাক হবেন তেমনি হাসবেন।



 আমরা দক্ষিণ আমেরিকার ভেনিজুয়েলার দেশটির কথা বলছি, যেখানে আজও একটি অনন্য ঐতিহ্য অনুসরণ করা হয়।  আমাদের দেশে যেভাবে বিয়ের অনুষ্ঠানে দেরি হলে লোকজনকে ছোট করে দেখা হয় এবং আয়োজকরা একটু রেগে যান, কিন্তু এদেশে তার সম্পূর্ণ বিপরীত।  এখানে বিয়ের অনুষ্ঠানে দেরি করলে আপনাকে সম্মান দেওয়া হয়।



 তাই মানুষ দেরিতে আসতে পছন্দ করে


 এই বিশ্বাসের ব্যাপারে মানুষ বিশ্বাস করে যে, এদেশের মানুষ মোটেই সময়নিষ্ঠ নয়।  এখানে ১৫ মিনিট থেকে এক ঘন্টা দেরিতে পৌঁছানো খুবই সাধারণ ব্যাপার।  এই কারণেই এখানকার মানুষ এই অভ্যাসটিকে তাদের ঐতিহ্যে অন্তর্ভুক্ত করেছে।  একটি প্রতিবেদন অনুসারে, যদি কোনও অনুষ্ঠান এখানে সন্ধ্যা সাতটায় শুরু করতে হয়, তবে তা রাত ৮ বা ৯টা পর্যন্ত স্বাচ্ছন্দ্যে শুরু হয়।


 

 এই ঐতিহ্যের কারণে সেখানকার মানুষ দেরিতে আসার সুবিধে নিয়েছে।  তার মতে, কোনো পার্টিতে দেরিতে পৌঁছালে তাকে তার জন্য ক্ষমা চাইতে হয় না।  এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগছে যে এই অনন্য বিশ্বাসের কারণ কী?  এই বিশ্বাসের কথা অডি ওয়েবসাইট জানিয়েছে যে, এখানে তাড়াতাড়ি এসে হোস্ট মনে করেন যে অতিথি লোভী এবং বেশি আগ্রহী এবং হোস্ট প্রস্তুতি সম্পন্ন না করলে দেরি হওয়ার সুবিধাও রয়েছে।  এই সময়ের মধ্যে তারা প্রস্তুতির সম্পূর্ণ সুযোগ পায়।

  


No comments:

Post a Comment

Post Top Ad