দুর্ঘটনার কবলে যাত্রীবাহী ট্রেন,মৃত ১০ - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 8 June 2022

দুর্ঘটনার কবলে যাত্রীবাহী ট্রেন,মৃত ১০

 


 বুধবার সকালে ইরানে একটি যাত্রীবাহী ট্রেন দুর্ঘটনার শিকার হয়।  ট্রেন লাইনচ্যুত হওয়ার কারণে কমপক্ষে 10 জন মারা গেছে, এবং 50 জনেরও বেশি লোক আহত হয়েছে।  দেশের পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত একটি শহরে এই ট্রেন দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।  সরকারি সংবাদমাধ্যম এ তথ্য জানিয়েছে।  এই দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানানো হয়েছে।  সরকারি সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মরুভূমির শহর তাবাসের কাছে সকালের অন্ধকারে ট্রেনটির সাতটি বগির মধ্যে চারটি লাইনচ্যুত হয়।





 দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে উদ্ধারকারী দল।  মরুভূমিতে বসতি থাকার কারণে এই শহরটি বেশ দুর্গম।  উদ্ধার কাজে অ্যাম্বুলেন্স ও তিনটি হেলিকপ্টার ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে।  এ এলাকায় যোগাযোগ ব্যবস্থাও খারাপ।  রাজধানী তেহরানের প্রায় 550 কিলোমিটার (340 মাইল) দক্ষিণ-পূর্বে তাবাস শহরে ট্রেন লাইনচ্যুত হওয়ার ঘটনাটি সামনে এসেছে।  শহরের কেন্দ্র থেকে 50 কিলোমিটার দূরে ট্রেনটি বিধ্বস্ত হয়।  এই ট্রেনটি তাবাসকে ইয়াজদের কেন্দ্রীয় শহরের সাথে সংযুক্ত করেছে।  প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দুর্ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে।  তবে প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে যে ট্রেনটি একটি খননকারী গাড়ির সাথে সংঘর্ষে পড়ে।



ইরানে এর আগেও ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটেছে।  2016 সালে এরকম একটি ট্রেন দুর্ঘটনায় ডজনখানেক মানুষ নিহত এবং অনেকে আহত হয়েছিল।  প্রতি বছর ইরানে মহাসড়কে 17,000 এরও বেশি মানুষ মারা যায়।  এতে বোঝা যায় ইরানের গণপরিবহন ব্যবস্থা কতটা খারাপ।  বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ ট্রাফিক নিরাপত্তার রেকর্ডের দেশগুলোর মধ্যে ইরান অন্যতম।  ট্রাফিক আইন মেনে চলার অভাব, অনিরাপদ যানবাহন এবং অপর্যাপ্ত জরুরি সেবা ইরানে সড়ক দুর্ঘটনার প্রধান কারণ।  ইরানের মহাসড়কে প্রায়ই মানুষকে ট্রাফিক নিয়ম ভাঙতে দেখা যায়।  এ কারণে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা।


 এর আগে 2021 সালের ডিসেম্বরে, দুটি ট্রেনের মধ্যে ট্রেনের সংঘর্ষে 22 জন আহত হয়েছিল।  তেহরান মেট্রোতে এই দুর্ঘটনা ঘটে।  আহতদের সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad