'প্রধানমন্ত্রী মোদী মুসলিম দেশগুলির কথা শোনেন, কিন্তু ভারতের মুসলমানদের নয়': ওয়াইসি - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 8 June 2022

'প্রধানমন্ত্রী মোদী মুসলিম দেশগুলির কথা শোনেন, কিন্তু ভারতের মুসলমানদের নয়': ওয়াইসি


নবী মোহাম্মদকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্যে আবারও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিশানা করলেন এআইএমআইএম (AIMIM) প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি। ওয়াইসি বলেন, মুসলিম দেশগুলো আপত্তি করলে নূপুর শর্মা এবং নবীন জিন্দালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়। কিন্তু দেশের মুসলমানরা যখন আওয়াজ তুলছিল, তখন কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।


মহারাষ্ট্রের লাতুরে এক সমাবেশে ভাষণ দিতে গিয়ে তিনি বলেন, 'প্রধানমন্ত্রী এদেশের বাসিন্দা মুসলমানদের দিকে মনোযোগ দেননি বলে আমরা ক্ষুব্ধ। কিন্তু বাইরের দেশগুলো সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়। নূপুর শর্মা এবং নবীন জিন্দালের নাম না নিয়ে তিনি বলেন, "নবী মোহাম্মদকে নিয়ে বিতর্কিত বক্তব্য দেওয়ার জন্য দুজনকেই গ্রেপ্তার করা উচিৎ। সরকার যদি মনে করে যে তারা ভুল করেছে, তাহলে এই লোকদের গ্রেপ্তার করুন, তাহলে ন্যায়বিচার করা হবে। আমি যদি প্রধানমন্ত্রী হই। আমি যদি মোদীর বিরুদ্ধে কিছু অসংসদীয় ভাষা ব্যবহার করি, তাহলে বিজেপির লোকেরা 'ওয়াইসিকে গ্রেপ্তার' ইস্যু করে, কিন্তু আমরা দশ দিন থেকে তাকে গ্রেপ্তারের দাবী করছি, তারপরও আমাদের কথা পর্যন্ত শোনা হচ্ছে না।


নবীর বিরুদ্ধে নূপুর শর্মা এবং নবীন কুমার জিন্দালের বিতর্কিত মন্তব্য দেশবিরোধী তত্ত্ব সক্রিয় করেছে, অন্যদিকে ভারতের জন্য কূটনৈতিক অসুবিধাও দেখা দিয়েছে। আল কায়েদা দেশের অনেক শহরে হামলার হুমকি দিয়েছে। কুয়েত ইতিমধ্যেই তাদের দোকান থেকে ভারতীয় পণ্য প্রত্যাহার করে নিয়েছে। কুয়েত, ইরান, আফগানিস্তান, পাকিস্তান, ওমান, ইন্দোনেশিয়া সহ ১৫টিরও বেশি দেশ এই মন্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে। অন্যদিকে, মুম্বরা পুলিশ নূপুর শর্মাকে তলব করেছে এবং তাকে ২২ জুন হাজির হতে বলেছে।


অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড (এআইএমপিএলবি)ও নবী মোহাম্মদের বিরুদ্ধে বিতর্কিত মন্তব্যের বিষয়ে কঠোর অবস্থান নিয়েছে। মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ডের পক্ষ থেকে একটি চিঠি জারি করা হয়েছে। বিজেপি নেতারা, যারা নবী মোহাম্মদকে অবমাননাকর এবং অশালীন মন্তব্য করেছেন, তাদের দল থেকে বরখাস্ত করার কথা বলা হয়েছে, পাশাপাশি তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবী করা হয়েছে। মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড বলছে, নূপুর শর্মার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার পাশাপাশি তাকে কঠোর শাস্তিও দেওয়া উচিৎ।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad