"এটা কি আফগানিস্তান হয়ে গেছে?" কেন বললেন দিলীপ ঘোষ - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 24 August 2022

"এটা কি আফগানিস্তান হয়ে গেছে?" কেন বললেন দিলীপ ঘোষ


'বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তালেবানি শাসন চলছে'  বুধবার ইকো পার্কে মর্নিং ওয়াকের সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এমনই বিস্ফোরক মন্তব্য করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ। উল্লেখ্য, গরু চোরাচালান মামলায় তৃণমূল কংগ্রেসের হেভিওয়েট নেতা অনুব্রত মণ্ডলকে গ্রেফতারের পর কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের মিছিল এবং জামিন না দেওয়ায় বিচারককে মাদক মামলায় ফাঁসানোর হুমকির প্রেক্ষিতে রাজ্য সরকারকে এভাবেই নিশানা করেন তিনি।


অনুব্রত মণ্ডলের গ্রেফতারের বিরুদ্ধে মহিলা তৃণমূল কংগ্রেস ও যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্যরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখান।  দিলীপ ঘোষ বলেন, “সিবিআই-ইডিকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে।  তারা যেন তদন্ত থেকে সরে দাঁড়ায় এমন পরিস্থিতি তৈরি করা হচ্ছে। এটা কি আফগানিস্তান হয়ে গেছে?"


অন্যদিকে এদিন বুধবার গরু পাচার মামলায় অনুব্রত মণ্ডলকে আসানসোলের বিশেষ আদালতে হাজির করে সিবিআই। তার আগেই আসানসোলের বিশেষ সিবিআই আদালতের বিচারককে হুমকি চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ।  তাতে লেখা ছিল- 'অনুব্রত মণ্ডল জামিন না পেলে মাদক মামলায় ফাঁসানো হবে পরিবারকে।  এ প্রসঙ্গে দিলীপের দাবী, “একটা ভয়ের পরিবেশ তৈরি হয়েছে। এমনকি বিচারকরাও রেহাই পাননি।”  


বিভিন্ন জায়গায় অনুব্রত মণ্ডলের সম্পত্তিতে সিবিআইয়ের অভিযানের বিষয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, “প্রতিদিনই তার সম্পদ বাড়ছে। আমি জানি না এটা কোথায় নিয়ে যাবে। দিদি নিশ্চয়ই তৃণমূলের সেই যোগ্য নেতার প্রশংসা করেছেন।  বাংলায় এত সম্পদ আর কেউ বানায়নি। এমন হাজারও অনুব্রত তৈরি হয়েছে। ভাবুন তো তৃণমূল নেতাদের কত সম্পদ আছে।"


মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুর্গা পূজা কমিটিকে ৬০ হাজার টাকা অনুদান নিয়েও আক্রমণ করলেন দিলীপ ঘোষ।  উল্লেখ্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবার পূজা কমিটিকে ৬০ হাজার টাকা অনুদান দেওয়ার ঘোষণা করেছেন।  পাশাপাশি এ বছর ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ অক্টোবর পর্যন্ত সরকারি কর্মচারীদের পূজার ছুটি থাকবে। এ বিষয়ে কড়া জবাব দিয়েছেন দিলীপ। 


তিনি বলেন, “দুর্নীতি থেকে মনোযোগ সরাতে পূজার পরিবেশ তৈরি করা হচ্ছে। সেজন্য প্রথমে ক্লাবগুলোকে অনুদান দেওয়া হয়েছে।”  তিনি বলেন, 'নেতাদের ধরা হচ্ছে। দুর্নীতির বিষয়টি সামনে আসছে। এই নাটক ঘুষের টাকা ৫০ হাজার থেকে বাড়িয়ে ৬০ হাজার করেছে। লুটপাট হচ্ছে কোটি কোটি টাকা। মানুষ ভিক্ষুক হয়ে উঠছে, কিন্তু জনগণের দৃষ্টি সরানোর জন্য এটা করা হচ্ছে।'


No comments:

Post a Comment

Post Top Ad