শ্রীলঙ্কায় চীনা গুপ্তচর যুদ্ধজাহাজ! সতর্ক ভারতীয় নৌবাহিনী - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Thursday, 18 August 2022

শ্রীলঙ্কায় চীনা গুপ্তচর যুদ্ধজাহাজ! সতর্ক ভারতীয় নৌবাহিনী



শ্রীলঙ্কার হাম্বানটোটা বন্দরে চীনা গুপ্তচর যুদ্ধজাহাজ ইউভান ওয়াং-৫-এর আগমন এবং এ নিয়ে শ্রীলঙ্কা সরকারের অবস্থান নিয়ে অস্বস্তিতে ভারত।  বর্তমান পরিস্থিতিতে, ভারত আশা করেছিল যে শ্রীলঙ্কা সরকার সামরিক জাহাজটিকে বন্দরে থামতে দেবে না।  এ জন্য ভারতের পক্ষ থেকেও চেষ্টা করা হয়েছে বলে সূত্রের দাবী।  তবে শেষ পর্যন্ত এ বিষয়ে শ্রীলঙ্কার ওপর আধিপত্য বিস্তারে সফল হয়েছে চীন।  ভারতের আশঙ্কা, শ্রীলঙ্কার অবস্থান একই থাকলে ভবিষ্যতে ওই অঞ্চলে চীনের সামরিক শিপিং কার্যক্রম বাড়তে পারে।



 সাম্প্রতিক অতীতে শ্রীলঙ্কায় উদ্ভূত পরিস্থিতিতে, ভারত 'প্রথম প্রতিবেশী' নীতির অধীনে শ্রীলঙ্কাকে অনেক সাহায্য করেছিল, যার মধ্যে প্রায় $ ৩.৫ বিলিয়ন প্যাকেজ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।  শ্রীলঙ্কার সেই পরিস্থিতির জন্য চীন মূলত দায়ী, সাহায্য করতে পিছিয়ে ছিল।  চীনের ঋণ পরিশোধ না করার কারণে, শ্রীলঙ্কাকে হাম্বানটোটা বন্দরটি ৯৯ বছরের লিজে দিতে হয়েছিল।  কিন্তু এই ইজারা শুধুমাত্র অ-সামরিক উদ্দেশ্যে করা হয়েছিল।



সূত্রে খবর, চীন শ্রীলঙ্কাকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছে যে এটি একটি সামরিক জাহাজ নয়, একটি গবেষণা জাহাজ।  কিন্তু ভারত এতে মোটেও একমত নয়।  তথ্য রয়েছে যে এটি মূলত গোয়েন্দা সরঞ্জামে সজ্জিত একটি জাহাজ যা বিশেষ উদ্দেশ্যে ভারত মহাসাগরে এসেছে।  গবেষণা নিছক ছলনা।  শ্রীলঙ্কার অবস্থানে ভারতও বিস্মিত হয়েছে কারণ শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতিও বলতে শুরু করেন যে এটি সামরিক জাহাজ নয়।



 সূত্রের খবর, তবে শ্রীলঙ্কায় চীনা জাহাজের আগমনের পরিপ্রেক্ষিতে নৌবাহিনী ভারতীয় জলসীমায় কড়া নজর রাখছে।  এর আওতায় চীনা জাহাজ সমুদ্র সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন না করে সেদিকে বিশেষ নজর রাখা হচ্ছে।  এরকম কিছু হলে ভারত সরাসরি এর বিরোধিতা করবে।  আগামী দিনে ভারত আবারও এই ইস্যুতে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে আলোচনায় বসার সম্ভাবনা রয়েছে।


No comments:

Post a Comment

Post Top Ad