বইয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাম কেন? নেলসন ম্যান্ডেলাকে হাতিয়ার করল কোর্স কমিটি - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Tuesday, 2 August 2022

বইয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাম কেন? নেলসন ম্যান্ডেলাকে হাতিয়ার করল কোর্স কমিটি



বাংলার পাঠ্যপুস্তকে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাম কেন?  প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীকে গ্রেপ্তারের পর বিরোধী দলগুলো ইস্যু তুলতে শুরু করে।  এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দেন কোর্স কমিটির চেয়ারম্যান অভীক মজুমদার।  তিনি বলেন, অষ্টম শ্রেণির বইতে সিঙ্গুর আন্দোলনের একটি অধ্যায় রয়েছে।  এতে এক বাক্যে লেখা আছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন এবং তাঁর সঙ্গে ছিলেন তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেতা পার্থ চট্টোপাধ্যায়।   



 কমিটির সভাপতি অভীক মজুমদার বলেন, "ইতিহাসের দিকে তাকালে এই বাক্যে কোনও ভুল নেই।  এই পাঠ্যটি 2016 সালে তৈরি করা হয়েছিল এবং এটি আজও সত্য।  সেই সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে ছিলেন তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেতা পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও।  এটি আজও ঐতিহাসিকভাবে সত্য।"


 

 পরবর্তীকালে, পাঠ্যক্রম কমিটির চেয়ারম্যান এই বিষয়টির সাথে দক্ষিণ আফ্রিকাকেও উল্লেখ করেন।  তিনি বলেন, নেলসন ম্যান্ডেলা ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকায় শ্বেতাঙ্গ নিপীড়নের বিরুদ্ধে আন্দোলনের প্রধান নেতা।  তার সঙ্গে ছিলেন তার স্ত্রী উইনি ম্যান্ডেলা।  পরে দুর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত হন উইনি ম্যান্ডেলা।  এই ঘটনার পর উইনি নেলসন ম্যান্ডেলাকে ডিভোর্স দেন এবং পার্টি থেকে বহিষ্কৃত হন।  কিন্তু আজও উইনি ম্যান্ডেলার নাম ইতিহাসের বইয়ে লিপিবদ্ধ আছে।



প্রসঙ্গত, শিক্ষক নিয়োগ কেলেঙ্কারির অভিযোগে প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে ইডি।  এরপরই রাজ্যের বইয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের নাম অন্তর্ভুক্ত করা নিয়ে শোরগোল শুরু করে বিরোধী দলগুলি।  রাজ্যের শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী।


 

 এছাড়াও বিজেপি নেতা অনুপম হাজরাও এই বিষয়টি নিয়ে ট্যুইট করেন।  তিনি লিখেন, "লাখ লাখ শিক্ষিত বেকারের টাকা আত্মসাতের দায়ে এই ব্যক্তি এখন কারাগারে।  এখন অন্তত অষ্টম শ্রেণির ইতিহাসের বই থেকে তার নাম মুছে দিন।" তিনি বলেন, "বইয়ে নাম দেখে নতুন প্রজন্ম পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে নেতাজি ও ক্ষুদিরামের সমান ভাবতে শুরু করবে।"

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad