রাজনৈতিক স্বার্থে দেশের ইতিহাস পাল্টানো হচ্ছে: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 21 September 2022

রাজনৈতিক স্বার্থে দেশের ইতিহাস পাল্টানো হচ্ছে: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়


দেশে চলমান বিভিন্ন পরিবর্তনের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে তীব্র নিশানা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার আলিপুর মিউজিয়ামের উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানেই তিনি বলেন, 'রাজনৈতিক স্বার্থে দেশের ইতিহাস পাল্টে দেওয়া হচ্ছে। আগে এমন পরিস্থিতি ছিল না। আমাদের সবকিছু নতুনভাবে দেখানোর চেষ্টা চলছে।' মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'আমাদের ইতিহাস আমাদের পরিচয়।' উল্লেখ্য, জাদুঘরটি জজ কোর্ট রোডে তৎকালীন আলিপুর সেন্ট্রাল কারেকশনাল হোম প্রাঙ্গণে তৈরি করা হয়েছে। 


এদিন আলিপুর মিউজিয়ামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও একবার নাম না নিয়েই বিজেপিকে নিশানা করেন। তিনি বলেন, 'রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত হয়ে বাস্তব ঐতিহাসিক ঘটনা, ভূগোল ও বিজ্ঞানকে রুপান্তরের মিশন চলছে। যাতে নতুন প্রজন্ম দেশের সত্য ও স্বাধীনতা সংগ্রাম সম্পর্কে জানতে না পারে।'


তিনি বলেন, 'বাংলা না থাকলে হয়তো নবজাগরণ হতো না। স্বাধীনতা আন্দোলন ও সংস্কার হতো না।' তিনি আরও বলেন, নেতাদের আদর্শে ভিন্নতা থাকতে পারে কিন্তু সম্মানে নয়। সব ধর্ম সম্পর্কে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, 'ধর্ম সবার আলাদা হতে পারে। বুঝুন মানবতা বড় ধর্ম। তেমন উৎসব সবার। একইভাবে নেতা সবার হয় এবং তারা যদি একজন ভালো নেতা হন তাহলে জনগণকে সঠিক নেতৃত্ব দিন। একজন ভালো নেতা মানুষকে সাথে নিয়ে যায়।'


মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও বলেন, 'আমাদের ইতিহাস সংরক্ষণ করা দরকার। তাই আমরা নেতাজি সম্পর্কিত ফাইলগুলিকে ডিজিটালাইজ করে জনগণের হাতে তুলে দিয়েছি। 


উল্লেখ্য, সংশোধনাগারটি ২০১৯ সালে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল এবং সমস্ত বন্দীদের বারুইপুর কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে স্থানান্তরিত করা হয়েছিল। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেশের স্বাধীনতার ৭৫ তম বছর উদযাপন উপলক্ষে সংশোধনাগারের ভবনগুলি পুনরুদ্ধার করার এবং একটি যাদুঘর স্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছিলেন, 


প্রসঙ্গত, নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু ১৯৩০ সালে আলিপুর সংশোধনাগারের অভ্যন্তরে একক আবাসিক কক্ষ থেকে কলকাতার মেয়র নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন এবং জিতেছিলেন। 

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad