নারকো টেস্টে সম্মতি আফতাবের! - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Thursday, 17 November 2022

নারকো টেস্টে সম্মতি আফতাবের!



শ্রদ্ধা খুন মামলার অভিযুক্ত আফতাব পুনাওয়ালা বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দিল্লী আদালতে হাজির হন।  মামলার নিরাপত্তা ও সংবেদনশীলতার পরিপ্রেক্ষিতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অভিযুক্ত আফতাব পুনাওয়াল্লাকে হাজির করার আবেদন মঞ্জুর করা হয়।  আফতাবের পুলিশি রিমান্ড ৫ দিন বাড়িয়েছে আদালত।  আফতাবের ১০ দিনের রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ।



 আফতাবের নারকো টেস্টের জন্য দিল্লী পুলিশের আবেদনের ওপর শুনানিও হয়েছে।  আফতাবের নারকো টেস্টের অনুমতি দিয়েছেন আদালত।  আফতাবও নারকো টেস্টে সম্মতি দিয়েছেন।  পুলিশ আদালতে বলেছে যে অভিযুক্তকে হিমাচল, উত্তরাখণ্ড, মুম্বাই এবং গুরুগ্রাম সহ বিভিন্ন স্থানে নিয়ে যেতে হবে।  এর আগে, প্রযোজনার বিষয়ে, পুলিশ বলেছিল যে তাকে আদালতে নিয়ে আসা তার ক্ষতি করতে পারে কারণ শ্রদ্ধা ওয়াকার খুনের ঘটনায় ক্ষুব্ধ কিছু লোক তাকে আদালতের ভিতরে বা আদালত প্রাঙ্গণে মারধর করতে পারে।  আদালতের বাইরে আইনজীবীদের একটি বড় দল ‘ওকে ফাঁসি দাও, ফাঁসি দাও’ বলে চিৎকার করতে থাকে।


 

 গত মে মাসে আফতাব পুনাওয়ালা তার লিভ-ইন পার্টনার শ্রদ্ধা ওয়াকারকে খুন করেছিলেন।  এবার বিষয়টি প্রকাশ্যে এসেছে।  আফতাব শ্রদ্ধা ওয়াকারের মৃতদেহ ৩৫ টুকরো করে ঘরের ফ্রিজে রেখেছিল এবং প্রতিদিন রাতে মেহরাউলি জঙ্গলে গিয়ে ফেলে দিতেন।  এই খুনের ঘটনা আবারও সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘লাভ জিহাদ’ নিয়ে বিতর্ক শুরু করেছে।



আফতাব পুনাওয়ালা এবং শ্রদ্ধা ওয়াকার ডেটিং অ্যাপ বাম্বলে দেখা করেছিলেন।  দুজনেই মুম্বাইয়ের একটি কল সেন্টারে কাজ করতেন।  তার বাবা-মা তাদের সম্পর্কের বিষয়ে আপত্তি করেছিলেন, তারপরে তিনি মুম্বাই থেকে দিল্লীতে চলে আসেন।  গত মে মাসে তাদের দুজনের বিয়ে নিয়ে বিতর্ক হয়।  এরপর আফতাব শ্রদ্ধাকে শ্বাসরোধ করে খুন করে।  অভিযুক্তের ফাঁসির দাবী জানিয়েছেন শ্রদ্ধার বাবা।



 অভিযুক্ত ব্যক্তি পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে যে সে শ্রদ্ধাকে খুন করেছে।  কল সেন্টারে কাজ করার আগে আফতাব শেফের কাজ করতেন।  ডেক্সটার নামের ওয়েব সিরিজ থেকে অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন আফতাব।  একই ওয়েব সিরিজ থেকে দেহ নিষ্পত্তির ধারণা পান আফতাব।


No comments:

Post a Comment

Post Top Ad