'অনেককেই তিহার জেলে যেতে হবে', সুর চড়ালেন শুভেন্দু! ডেঙ্গু নিয়েও রাজ্যকে নিশানা - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Friday, 4 November 2022

'অনেককেই তিহার জেলে যেতে হবে', সুর চড়ালেন শুভেন্দু! ডেঙ্গু নিয়েও রাজ্যকে নিশানা


গরু চোরাচালান কাণ্ডে ইডি-র দায়ের করা মামলায় অনেক লোক জড়িত। প্রমাণিত হলে তাদের যেতে হবে তিহার জেলে, সেখানে তারা এখানকার মতন সুযোগ-সুবিধা পাবেন না,' রাজ্যের শাসক দলকে নিশানা বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর। পাশাপাশি তাঁর কটাক্ষ, 'তৃণমূল হল নিয়োগ কেলেঙ্কারি, কয়লা ও গরু পাচার, পঞ্জি প্রকল্পে জড়িত চোরদের সরকার।' 


কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী নিশীথ অধিকারীর গাড়িবহরে হামলার জন্যও রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করেন তিনি। ডেঙ্গু নিয়েও সরকারকে আক্রমণ করেন শুভেন্দু এবং কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে কেন্দ্রীয় দল পাঠানোর আবেদনও জানিয়েছেন।


কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিকের গাড়িবহরে হামলা প্রসঙ্গে শুভেন্দু বলেন, “বাংলায় কেউ নিরাপদ নয়, এমনকি জনপ্রতিনিধিও নয়। পুলিশ তৃণমূলের জন্য কাজ করে এবং কাটমানি সংগ্রহ করে। রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা মানা হচ্ছে না।”



রাজ্যে ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে, বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী রাজ্য সরকারকে আক্রমণ করেন। তিনি শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, 'ডেঙ্গু পুরো রাজ‌্যে ছড়িয়ে পড়ছে, আর মুখ্যমন্ত্রী ও তাঁর প্রশাসন ছুটিতে। দুয়ারে সরকারের নামে পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে। মিথ্যা বলা হচ্ছে।' 


তিনি বলেন, “রাজ্যে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ৫০ হাজারে পৌঁছেছে। লক্ষ লক্ষ টেস্ট করা হয়নি। রাজ্য জুড়ে চলছে মৃত্যু মিছিল। সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালগুলো ডেঙ্গু রোগীতে ভরপুর। রাজ্য সরকার ব্যর্থ হয়েছে।”  


শুভেন্দু অধিকারীর অভিযোগ, 'কেন অন্য রাজ্যে ডেঙ্গু বা মশাবাহিত রোগ ছড়াচ্ছে না? এর কারণ হল অন্যান্য রাজ্যগুলি প্রধানমন্ত্রীর নমামি গঙ্গে যোজনার সুবিধা নিয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ এর সুবিধা নেয়নি।' তিনি আরও বলেন, “এছাড়াও রাজ্যে কঠিন বর্জ্য ব্যবস্থাপনার অবস্থা খুবই খারাপ। অন্যান্য রাজ্যে এটি ১০০ শতাংশে পৌঁছে গেলেও পশ্চিমবঙ্গ এর কাছাকাছিও আসেনি। ফলে কিছুদিন আগে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে জরিমানা করে ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইব্যুনাল।"


তিনি বলেন, “আমরা সরকারের কাছে দাবী করছি, যুদ্ধকালীন তৎপরতায় মশার সব উৎস ধ্বংস করতে হবে, সকল সরকারি হাসপাতালে ডেঙ্গুর জন্য আলাদা কেন্দ্র তৈরি করতে হবে। ডেঙ্গুর চিকিৎসার দায়িত্ব সরকারের। যারা বেসরকারি হাসপাতালে যাবেন, তাদের চিকিৎসার খরচ সরকার বহন করবে। সেই সঙ্গে পুরসভা থেকে পঞ্চায়েত সর্বত্রই ডেঙ্গু পরীক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে সরকারকে। দুই দিনের মধ্যে পরিস্থিতির উন্নতি না হলে কমিশনারের কার্যালয়ের সামনে পিকেটিং করবেন আমাদের কাউন্সিলররা।"


অন্যদিকে মোমিনপুর সহিংসতা মামলায় গ্রেফতার সাংবাদিকের জামিনের পর, তাঁকে স্বাগত জানিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad