রক্তে শর্করার মাত্রা কতটা স্বাস্থ্যকর জেনে নিন - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Saturday, 19 November 2022

রক্তে শর্করার মাত্রা কতটা স্বাস্থ্যকর জেনে নিন


ডায়াবেটিস একটি অত্যন্ত জটিল রোগ, এটি কারও একবার হয়ে গেলে তা সারাজীবনের জন্য পিছু ছাড়ে না, এখন পর্যন্ত বিজ্ঞানীরা এর শক্ত প্রতিকার খুঁজে পাননি। ভারতকে এমনকি ডায়াবেটিসের রাজধানী বলা হয় কারণ এই দেশে ডায়াবেটিস রোগীর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। কয়েক দশক আগে 40-45 বছরের বেশি বয়সীরা এই রোগে আক্রান্ত হলেও এখন নবজাতক ও যুবকরাও এর শিকার হচ্ছেন। রক্তে শর্করার মাত্রা যখন নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়, তখন এই রোগ আরও ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে।


ডায়াবেটিসে শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে 

ডায়াবেটিস আরও অনেক রোগের জন্ম দেয়, যেমন দৃষ্টিশক্তি হ্রাস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ, কিডনি রোগ, এমন পরিস্থিতিতে শরীর ধীরে ধীরে দুর্বল হতে শুরু করে। তবে সঠিক খাদ্যাভ্যাস এবং সঠিক ব্যায়ামের মাধ্যমে আপনি ডায়াবেটিসের ঝুঁকিও কমাতে পারেন। অনেকেই আছেন যারা ডায়াবেটিস থাকা সত্ত্বেও নিজেকে সুস্থ রাখতে কোন কসরত রাখেন না। 


বয়স অনুসারে চিনির মাত্রা


আপনার বয়স যদি 18 বছরের বেশি হয় তবে খাবার খাওয়ার এক বা দুই ঘন্টা পরে এটি 140 মিলিগ্রাম প্রতি ডেসিলিটার (mg/dL) হওয়া উচিত। আপনি যদি উপোস থাকেন তবে 99 mg/dL স্বাস্থ্যকর বলে বিবেচিত হয়। এর থেকে বেশি সুগার বেড়ে গেলে অবিলম্বে ডাক্তার দেখাতে হবে, অন্যথায় স্বাস্থ্যঝুঁকি হতে পারে।


যদি আপনার বয়স 40 বছর হয়, তবে আপনার রক্ত ​​​​পরীক্ষা নিয়মিত করা উচিত কারণ এই বয়সে ঝুঁকি খুব বেশি। 40 থেকে 50 বছর বয়সী লোকেদের উপবাসে চিনির মাত্রা 90 থেকে 130 mg/dL হওয়া উচিত, যখন খাওয়ার পরে এই মাত্রা 140 mg/dl এর কম হওয়া উচিত এবং রাতের খাবারের পরে এটি 150 পর্যন্ত হওয়া উচিত।


যেভাবে সুগার কন্ট্রোল করবেন

আপনার যদি ডায়াবেটিস থাকে, তাহলে আপনাকে যেকোনো মূল্যে চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। এ জন্য শারীরিক পরিশ্রম বাড়াতে পারেন, প্রতিদিন হাঁটার অভ্যাস তৈরি করলে তা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ভালো হবে। ডায়েটের ক্ষেত্রে যতটা সম্ভব তৈলাক্ত খাবার, মিষ্টি জিনিস, প্রক্রিয়াজাত খাবার এড়িয়ে চলুন।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad