বিধানসভায় মমতার ঘরে শুভেন্দু! কিন্তু কেন? - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Friday, 25 November 2022

বিধানসভায় মমতার ঘরে শুভেন্দু! কিন্তু কেন?


বাংলার রাজনৈতিক মহলে মমতা বনাম শুভেন্দু তরজা শিরোনামে। কিন্তু এরই মাঝে শুক্রবার রাজ্য বিধানসভার শীতকালীন অধিবেশন চলাকালীন নজরে এল ভিন্ন দৃশ্য। এদিন বিধানসভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘরে গেলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। সঙ্গে ছিলেন বিধায়ক অগ্নিমিত্রা পল,  এবং মনোজ টিগ্গা। জানা গিয়েছে, শুভেন্দু অধিকারীকে চায়ের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।এরপরেই তাঁর চেম্বারে গিয়েছিলেন তারা। দুজনের মধ্যে কথাবার্তাও হয়েছে। বিধানসভায় প্রথমবারের মতো বিরোধী দলীনেতা শুভেন্দু অধিকারী এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মধ্যে বৈঠক হয়েছে। উল্লেখ্য, একুশের বিধানসভা নির্বাচনের পর এই প্রথম মুখ্যমন্ত্রী এবং শুভেন্দুর মধ্যে বৈঠক হয়।


নতুন রাজ্যপালের শপথগ্রহণ নিয়ে উত্তপ্ত রাজ্যের রাজনীতি। শুভেন্দু অধিকারী শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে না এসে দোষ চাপিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রীর ওপর। এর মাত্র দুদিন পর এই বৈঠক। বৈঠকের পর মমতা বলেন, আমি শুভেন্দু অধিকারীকে চা খেতে ডেকেছিলাম। সেই আহ্বানে সাড়া দেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা। এইইপ্রসঙ্গে, শুভেন্দু অধিকারী বলেন, এটি একটি 'সৌজন্য সাক্ষাৎ' ছিল। 


এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, বিরোধী দলনেতা অনেক কথাই বলেছেন। তিনি বলছেন, বৈঠকে তাকে ডাকা হয়নি। বিজিবিএসে ডাকা হলেও কেউ আসেনি। সংসদে একটিও স্থায়ী কমিটির সভাপতিত্ব দেওয়া হয়নি তৃণমূলকে। এটা কি বাংলার অপমান নয়? রাজ্যপাল শপথ নেন, সুকান্ত মজুমদার, শুভেন্দু অধিকারী কেউ আসেননি, এসেছিলেন সিপিএম নেতা বিমান বসু। তাকে ধন্যবাদ। আপনারা সবাই ১৫ ডিসেম্বর চলচ্চিত্র উৎসবে আসবেন।' পাশাপাশি তিনি স্পষ্টভাবে বাংলার উন্নয়নে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানান।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad