দুঃস্বপ্ন কি আপনার রাতকেও অন্ধকার করে? এটি এই রোগের লক্ষণ - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Saturday, 19 November 2022

দুঃস্বপ্ন কি আপনার রাতকেও অন্ধকার করে? এটি এই রোগের লক্ষণ


বেশিরভাগ ছোট বাচ্চারা রাতে দুঃস্বপ্ন দেখে, যদিও এমন কোনও সমাধান নেই। যেকোনো বয়সের মানুষেরই খারাপ স্বপ্ন দেখা যেতে পারে এবং খারাপ স্বপ্ন ক্রমাগত আসতে থাকলে এই সমস্যা বাড়ে। এমতাবস্থায় ভাবা দরকার যে, এর কারণ কী?  খারাপ স্বপ্নকে ইংরেজিতে বলা হয় দুঃস্বপ্ন। দুঃস্বপ্ন দেখার অনেক কারণ আছে, যেমন মানসিক চাপ এবং শারীরিক। কখনও কখনও ডাক্তারি কারণেও দুঃস্বপ্ন আসে। আপনি বা আপনার পরিবারের কেউ যদি এই ধরনের সমস্যায় ভুগে থাকেন, তবে আপনার সতর্ক হওয়া উচিত কারণ যদি দীর্ঘ সময় ধরে দুঃস্বপ্ন আসে, তবে এটি কিছু মেডিকেল ডিসঅর্ডারের কারণও হতে পারে।       


দুঃস্বপ্নের লক্ষণ


খারাপ স্বপ্ন বেশিরভাগই মধ্যরাতে আসে এবং এর জন্য কোন নির্দিষ্ট সময় নেই, অনেকেরই একাধিকবার এমন স্বপ্ন দেখা যায়। খারাপ স্বপ্ন বেশি আসে, তখন ঘুমাতে অসুবিধা হয় এবং ঘুম বারবার খুলে যায় এবং মনের মধ্যে কিছু একটা ভয় বসে যায়। এই সমস্যা যেকোনো বয়সেই হতে পারে। খারাপ স্বপ্নের কারণে রোগীরও টেনশন শুরু হয়। এমন স্বপ্ন দেখলে ভয়ও শুরু হয়, অনেক সময় মানুষ আতঙ্কে জেগে ওঠে। অনেক সময় আবার ঘুম হয় না, আবার অনেক সময় একজন অন্যের ওপর রাগ করতে থাকে এবং বিরক্তিও দেখা দেয়। এ কারণে সারাদিন ক্লান্ত লাগে।  


এটা খারাপ স্বপ্ন দেখার কারণ


অনেক সময় মানুষ দিনের বেলায় এমন ঘটনা দেখে যা বারবার মনে আসে, এটিও দুঃস্বপ্ন দেখার অন্যতম কারণ হতে পারে। অনেকে গভীর রাত পর্যন্ত হরর সিনেমা বা ভীতিকর কিছু দেখেন, তারপরও আপনি দুঃস্বপ্ন দেখেন। অনেক সময় সারাদিনে খারাপ ভাবতে থাকি, এই কারণে রাতেও খারাপ স্বপ্ন দেখি। এছাড়া প্যারাসমনিয়া হওয়ার পরও দুঃস্বপ্ন দেখার সমস্যা রয়েছে। প্যারাসোমনিয়া হল এক ধরনের ব্যাধি যাতে রোগীর ঘুমাতে সমস্যা হয়।  


কিভাবে এর চিকিৎসা করা যায় 


রাতে মেডিটেশন করে ঘুমালে খারাপ স্বপ্ন দেখার সম্ভাবনা কম থাকে। এ ছাড়া টেনশন নিবেন না। আজকাল অনেকেই অ্যালকোহল এবং ক্যাফেইন বেশি ব্যবহার করেন, এর কারণেও খারাপ স্বপ্ন আসে। এই ক্ষেত্রে, তাদের খাওয়া কমাতে হবে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad