'আমার ভোটেই আপনি প্রধানমন্ত্রী', সিএএ-এনআরসি নিয়ে এ কী বললেন মমতা! - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 23 November 2022

'আমার ভোটেই আপনি প্রধানমন্ত্রী', সিএএ-এনআরসি নিয়ে এ কী বললেন মমতা!


'আমার ভোটের কারণেই আপনি প্রধানমন্ত্রী'... দেশে সিএএ-এনআরসি-এর মাধ্যমে জনগণের নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলার বিষয়ে কেন্দ্রকে নিশানা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। বুধবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে জমির পাট্টা বিতরণ কর্মসূচিতে কেন্দ্রীয় সরকারকে তীব্র আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, "সিএএ এবং এনআরসি অন্য মানুষের নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলেন, মোদীজি, আপনি আমার ভোটে প্রধানমন্ত্রী। মানে, আপনি জনগণের ভোটে প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন। আর আপনি সেই জনসাধারণকেই বলছেন নাগরিকত্ব দেবেন? তার মানে আমরা নাগরিক নই, তাহলে কে আপনাকে ভোট দিয়েছে? কে আপনাকে জিতিয়েছে? আপনি কীভাবে প্রধানমন্ত্রী হলেন?"


মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, "আমার ভোটে আপনি প্রধানমন্ত্রী। আপনি আমাকেই বলছেন যে আমি আপনাকে নাগরিক অধিকার দেব। মানে আমি নাগরিক নই? এভাবে আপনি আমাকে অপমান করছেন। আপনাকে নাগরিক অধিকার দেওয়ার আগে আমরা নাগরিক মাত্র, আমাদের ছেলেমেয়েরা স্কুলে পড়ছে, কলেজে পড়ছে, মানুষ চাকরি করছে, দোকান চালাচ্ছে, অফিসে যাচ্ছে, রিকশা চালাচ্ছে এবং আরও অনেক কিছু করছে, তাদের ভোটার কার্ড আছে, আধার কার্ড আছে, তাই তাদের অধিকার আছে। তাদের আছে রেশন কার্ড, ভোটার তালিকায় তাদের নাম রয়েছে, তাই আজ সব সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছেন তাঁরা।"


মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উদ্বাস্তু বাংলাদেশীদের উদ্দেশ্যে বলেন, "আমি আপনাদের বলতে চাই অধিকার কাউকে দেওয়া হয় না। আপনাদের অধিকার কেড়ে নিতে হবে। তাই আপনাদের নাগরিক অধিকারও কেড়ে নিতে হবে। এর জন্য সবার আগে আপনার নামটি প্রথমে ভোটার তালিকায় থাকা উচিৎ। এটি গুরুত্বপূর্ণ যে যদি আপনার নাম ভোটার তালিকায় না থাকে তবে আপনাকে যে কোনও সময় বলা যেতে পারে যে আপনি এনআরসি। আপনি ডিটেনশন ক্যাম্পে যান। সেজন্য আমি আপনাদের সবাইকে অনুরোধ করছি, ভোটার লিস্টে নাম অবশ্যই তুলুন। মনে রাখবেন পঞ্চায়েত নির্বাচনের ভোটার তালিকায় নাম তালিকাভুক্তির কাজ চলছে ৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত, যান এবং অবিলম্বে আপনার নাম অন্তর্ভুক্ত করুন।"


সার ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রীয় সরকারকে নিশানা করে বলেন, "কেন্দ্রীয় সরকার কৃষকদের সার দিচ্ছে না। আমরা রাজ্যে সার তৈরি করি না বরং আমরা কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে কিনি। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার সরকার সার দেয় না। আমি বুঝতে পারছি না সার না দেওয়ার কারণ কী? আমরা মার্চ মাসে চিঠি দিয়েছি, আগস্ট ও নভেম্বর মাসেও চিঠি দিয়েছি। এই সময়ে সার আলু বপনের জন্য ব্যবহার করা হয়। আমরা কেন্দ্রর থেকে ২ লাখ মেট্রিক টন সার চেয়েছিলাম, কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার আমাদের দিয়েছে মাত্র ৭৭ হাজার টন সার। ভবিষ্যৎ কিভাবে বাংলায় সার তৈরি করা যায়, যাতে বাংলাকে কেন্দ্রীয় সরকারের ওপর নির্ভর না করতে হবে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad