ডাক্তারিতেও দুর্নীতি! সিবিআইয়ের নজরে ৭৩ চিকিৎসক, ১৪ রাজ্যের মেডিক্যাল কাউন্সিল - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Tuesday, 27 December 2022

ডাক্তারিতেও দুর্নীতি! সিবিআইয়ের নজরে ৭৩ চিকিৎসক, ১৪ রাজ্যের মেডিক্যাল কাউন্সিল


বিদেশ থেকে চিকিৎসা নিয়ে পড়াশোনা করে দেশে ফিরে আসা চিকিৎসকদের অবৈধ ভাবে প্র্যাকটিসের অনুমতি দেওয়ার অভিযোগ ঘিরে শোরগোল। এই বিষয়ে একাধিক রাজ্যের মেডিক্যাল কাউন্সিলগুলোর দিকে আঙুল উঠতে শুরু করে। বিষয়টি ক্রমশই উত্তপ্ত হতে থাকলে, এই সংক্রান্ত তদন্ত ভার সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশনের (সিবিআই) হাতে তুলে দেওয়া হয়। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে সিবিআই।  ১৪টি রাজ্যের মেডিক্যাল কাউন্সিল এবং ৭৩ জন ডাক্তার যারা বিদেশ থেকে মেডিসিন অধ্যয়ন করে ভারতে ফিরেছেন, সিবিআই তদন্তের আওতায় রয়েছেন। 


বিষয়টি ফরেন মেডিক্যাল গ্র্যাজুয়েট এক্সামিনেশন (FMGE) সম্পর্কিত, যা বিদেশে পড়াশোনা করার পর ভারতে আসা ডাক্তারদের জন্য বাধ্যতামূলক। অভিযোগ রয়েছে যে, ১৪টি রাজ্যের মেডিক্যাল কাউন্সিল ৭৩ জন ডাক্তারকে এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ না হয়ে অনুশীলনের জন্য বিদেশ থেকে ফিরে আসার অনুমতি দিয়েছে। 


সংবাদ সংস্থা পিটিআই-এর বরাত দিয়ে আধিকারিকরা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  আধিকারিকদের মতে, সিবিআই রাজ্য মেডিকেল কাউন্সিলের অজানা আধিকারিকদের এবং বিদেশ থেকে আসা ৭৩ জন মেডিক্যাল স্নাতকের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র, জালিয়াতি এবং প্রতারণা সম্পর্কিত ধারায় মামলা দায়ের করেছে।


বলা হয় যে নিয়ম মেনে, ১৪টি রাজ্যের মেডিক্যাল কাউন্সিল, বিদেশ থেকে পড়াশোনা করে ভারতে আসা ৭৩ জন স্নাতককে প্র্যাকটিস করার অনুমতি দিয়েছে। নিয়ম অনুযায়ী, যারা বিদেশ থেকে মেডিসিন নিয়ে পড়াশোনা করে ভারতে আসেন তাদের জন্য ফরেন মেডিক্যাল স্নাতক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়া বাধ্যতামূলক।


এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ না হয়েই প্র্যাকটিস করার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল বিদেশ ফেরত ৭৩ জন ডাক্তারকে, এমন অভিযোগ প্রকাশ্যে আসতেই ব্যাপক হৈচৈ পড়ে যায়। প্রকৃতপক্ষে, জাতীয় পরীক্ষা বোর্ড স্বাস্থ্য মন্ত্রককে জানিয়েছিল যে, ২০১১ থেকে ২০২২ সালের মধ্যে, বিদেশে পড়াশোনা করা ৭৩ জন মেডিক্যাল স্নাতক এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ না হয়ে অনুশীলনের অনুমতি পেয়েছে।


খবর পেয়েই সক্রিয় হয়ে ওঠে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।  স্বাস্থ্য মন্ত্রক বিষয়টি নিয়ে সিবিআইয়ের কাছে অভিযোগ করেছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সিবিআই-কে দেওয়া অভিযোগে বলা হয়েছে যে, অযোগ্য লোকদের দ্বারা এই ধরনের জালিয়াতি এবং জাল রেজিস্ট্রেশন সাধারণ নাগরিকদের স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক। এই ধরণের কাজ স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে অন্যান্য রাজ্যের ওপরও প্রভাব ফেলে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad