শিশুদের উচ্চতা বাড়াতে খাদ্য তালিকায় রাখুন এই খাবার - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Thursday, 29 December 2022

শিশুদের উচ্চতা বাড়াতে খাদ্য তালিকায় রাখুন এই খাবার

 


 শরীরে পুষ্টির অভাব হলে বৃদ্ধি থেমে যেতে পারে এবং উচ্চতা বাড়ানো কঠিন হতে পারে। উচ্চতা বাড়াতে শিশুদের খাদ্যাভ্যাসের দিকে নজর দিতে হবে। আমাদের দৈনন্দিন খাদ্যতালিকায় বৃদ্ধিতে সাহায্য করে এমন খাবার অন্তর্ভুক্ত করে আমরা উচ্চতা বাড়াতে পারি। 


শিশুদের বৃদ্ধির জন্য খাদ্য: আজকাল উচ্চতা বাড়ানো খুবই কঠিন হয়ে পড়েছে, পুষ্টির অভাবে উচ্চতাও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। জিনগত কারণে শিশুদের উচ্চতাও প্রভাবিত হয়। আজকাল অভিভাবকরা উচ্চতার জন্য তাদের বাচ্চাদের কম বয়সে পরিপূরক দেওয়া শুরু করে। শিশুদের উচ্চতা বাড়াতে হলে তাদের স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস প্রয়োজন।শিশুদের পুষ্টিকর খাবার খাইয়ে উচ্চতা বাড়াতে পারেন।


আমলা

আমলায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, ভিটামিন সি শিশুদের উচ্চতা বাড়াতে সাহায্য করে। ছোট বাচ্চাদের আমলা দিয়ে তৈরি জিনিস খাওয়ালে তার বৃদ্ধি ভালো হয়। আপনি আপনার ডায়েটে মোরব্বা, চাটনি এবং জুসের মতো জিনিসগুলি অন্তর্ভুক্ত করে উচ্চতা বাড়াতে পারেন।


দুধ

শিশুরা দুধ পানে অনেক নাটক করে, কিন্তু দুধ পান করা শারীরিক বিকাশের জন্য খুবই উপকারী। দুধে উপস্থিত ক্যালসিয়াম হাড়ের বৃদ্ধির জন্য অপরিহার্য। দুধ পান উচ্চতা বাড়াতে সাহায্য করে।


বাদাম

বাদামে অনেক পুষ্টি উপাদান রয়েছে। এতে ভিটামিন ই, ভিটামিন সি এবং ফাইবারের মতো পুষ্টি উপাদান পাওয়া যায়, যা শিশুদের উচ্চতা বাড়াতে কার্যকর। বাদাম খেলে বৃদ্ধি দ্রুত হয়। শরীরের পাশাপাশি মস্তিষ্কের বিকাশের জন্যও বাদাম উপকারী।


মটরশুটি

মটরশুঁটিতে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন থাকে। শিশুরা খুব কমই এই জাতীয় জিনিস খেতে পছন্দ করে, তবে তারা বৃদ্ধির জন্য খুব উপকারী প্রমাণিত হতে পারে। উচ্চতা বাড়াতে প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা উচিৎ মটরশুঁটি।


সবুজ শাক - সবজি

সবুজ শাকসবজি খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য অপরিহার্য। এতে প্রোটিন, ফাইবার এবং ভিটামিনের মতো পুষ্টি উপাদান থাকে যা উচ্চতা বাড়াতে সাহায্য করে। সবুজ শাকসবজি খেলে বৃদ্ধি ভালো হয়।


সয়াবিন

সয়াবিন পুষ্টিগুণে ভরপুর। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন যা শিশুদের উচ্চতা বাড়াতে সাহায্য করে। সয়াবিন থেকে তৈরি জিনিস খেলে শিশুদের বৃদ্ধিতে উপকার পাওয়া যায়।


বি.দ্র: এখানে দেওয়া তথ্য সাধারণ জ্ঞানের ওপর ভিত্তি করে লেখা- নতুন যে কোনও কিছু ট্রাই করার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ অবশ্যই নিন।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad