বিশ্ব কি ২০২৩ সালে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধে কাঁপবে, বাবা ভেঙ্গার ভবিষ্যদ্বাণী কি সত্যি হবে? - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Sunday, 1 January 2023

বিশ্ব কি ২০২৩ সালে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধে কাঁপবে, বাবা ভেঙ্গার ভবিষ্যদ্বাণী কি সত্যি হবে?




তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ: বাবা ভেঙ্গা তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন। তার ভবিষ্যদ্বাণী অনুসারে,২০২৩ সালে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ হবে। এতে সারা বিশ্ব কাঁপবে।  


তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধে বাবা বঙ্গ: নতুন বছরের শুরুর জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে গোটা বিশ্ব। এ জন্য মানুষ নানা ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। তবে, ২০২২ সালে শুরু হওয়া রাশিয়া এবং ইউক্রেনের মধ্যে যুদ্ধ সারা বিশ্বে চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে। এই যুদ্ধের প্রভাব সারা বিশ্বে পড়ছে। বিখ্যাত জ্যোতিষী বাবা ভেঙ্গার কথা বলতে গিয়ে তিনি বহু বছর আগে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন। তার মতে, ২০২৩ সালে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধে কাঁপবে বিশ্ব। 


রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ

রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে যুদ্ধের ফলে বিশ্বে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। এতে এখন পর্যন্ত বহু মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন। এই দুই দেশের মধ্যে চলমান যুদ্ধের কারণে বিশ্বে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের আওয়াজ উঠেছে। বাবা ভেঙ্গা বহু বছর আগে এই অবস্থার ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের পারমাণবিক বোমা ব্যবহারের হুমকি বিশ্বের জন্য বিপর্যয়কর প্রমাণিত হতে পারে।


পারমাণবিক হামলা

রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যে চলমান যুদ্ধের মধ্যে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন বিশ্বের অনেক নেতা। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনও কয়েকবার ইউক্রেনকে পরমাণু হামলার হুমকি দিয়েছেন। এই শর্তগুলি বিবেচনায় নেওয়া হলে, বাবা ভেঙ্গার ভবিষ্যদ্বাণীটি সত্য হতে পারে। বাবা ভেঙ্গা বহু বছর আগে বলেছিলেন, ২০২৩ সালে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ শুরু হতে পারে। তার অনেক ভবিষ্যদ্বাণী এ পর্যন্ত সত্য প্রমাণিত হয়েছে।


পৃথিবী ধ্বংস

খবরটি যদি বিশ্বাস করা হয় তাহলে এই সময়ে যদি তৃতীয় বিশ্ব ঘটে তাহলে মানুষকে অনেক বড় মূল্য দিতে হবে। এই সময়ে অনেক দেশের কাছে পারমাণবিক অস্ত্র রয়েছে। এমতাবস্থায় বিশ্বযুদ্ধ হলে গোটা বিশ্ব শেষ হয়ে যেতে পারে। এমনকি মহাকাশে স্যাটেলাইট ধ্বংস হয়ে যেতে পারে, যার কারণে বিশ্বে শুরু হতে পারে পারমাণবিক শীত। এমনটা হলে পৃথিবীতে বেঁচে থাকা কঠিন হয়ে পড়বে।


বি.দ্র: এখানে দেওয়া তথ্য প্রচলিত বিশ্বাস ও মান্যতার ওপর ভিত্তি করে লেখা। প্রেসকার্ড নিউজ এটি নিশ্চিত করে না।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad