পুরুষের গোপনাঙ্গ কেটে জোর করে বৃহন্নলা বানানোর কাজ করছে বাংলাদেশী গ্যাং! - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Thursday, 19 January 2023

পুরুষের গোপনাঙ্গ কেটে জোর করে বৃহন্নলা বানানোর কাজ করছে বাংলাদেশী গ্যাং!



আমরা শহরে বা গ্রামে যত ট্রান্সজেন্ডার দেখি, তারা কি সত্যিকারের বৃহন্নলা?  পুরুষদের গোপনাঙ্গ কেটে বৃহন্নলা বানানো হচ্ছে বলে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করেছেন সন্তোষপুর তৃতীয় লিঙ্গ কল্যাণ সমিতির সম্পাদক বৃহন্নলা নূর বেগম।  তিনি প্রকৃত বৃহন্নলা নন।  এর পেছনে কাজ করছে বাংলাদেশ গ্যাং।  তিনি বলেন, অর্থ উপার্জনের জন্য পুরুষদের গোপনাঙ্গ কেটে বৃহন্নলা করা হচ্ছে।



 নূর বেগম দাবী করেন, তার নাম নূর মোহাম্মদ।  বাড়ি খিদিরপুর এলাকায়।  তখন নূরের বয়স ছিল মাত্র ১৩ বছর।  ওই বয়সে বৃহন্নলা পপি তাকে প্রথম ডাক্তারের কাছে নিয়ে গিয়ে খৎনা করিয়ে তাকে বৃহন্নলা বানিয়ে দেন।  ট্রান্সজেন্ডার শনিও একই রকম দাবী করেছিলেন যে তাকেও ১০ বছর বয়সে জোর করে বৃহন্নলা করা হয়েছিল।



 শুধু পপি নন, অনেকেই অর্থ উপার্জনের জন্য তাদের লিঙ্গ পরিবর্তন করেছেন।নূর আরও অভিযোগ করেছেন যে পার্ক স্ট্রিট, সোনারপুর, পার্ক সার্কাসের মতো জায়গায় অনেক ডাক্তার এবং নার্সিং হোম রয়েছে, যারা পুরুষদের গোপনাঙ্গ কেটে দেয় এবং তাদের অনেককে তৈরি করা হয়। তিনি বলেন, তারা দীর্ঘদিন ধরে সন্তোষপুর, মাটিয়াব্রুজ ও গার্ডেনরিচ এলাকায় ভিক্ষা করে আসছেন, কিন্তু দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলায় বাংলাদেশের কিছু লোক জোর করে বৃহন্নলা বানিয়ে তাদের এলাকায় ভিক্ষা করতে পাঠাচ্ছে।



দাবী অনুযায়ী টাকা না দেওয়ায় অনেকে মানুষকে গালাগালি করছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।  কেউ কেউ শারীরিক হেনস্থাও করছেন।  নূর বেগমের দাবী, কষ্ট না করে বেশি টাকা রোজগারের জন্য অনেক পুরুষ এ পেশায় যোগ দিয়েছেন।  বৃহন্নলাদের চাপের কাছে কেউ যেন নতি স্বীকার না করে এবং টাকা না দেওয়ার আবেদন করেন নূর।  প্রয়োজনে থানায় অভিযোগ করার অনুরোধ করেন তিনি।  নূর বলেন, "সারাদিন কোনও না কোনওভাবে কেটে যায়, সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরলে স্ত্রী নেই, স্বামী নেই, সন্তান নেই!  জীবনের ভুলগুলো এখন আমাদের তাড়া করছে। " অন্যদিকে বৃহন্নলাদের তোলাবাজির বিরুদ্ধে সরকার ও পুলিশ প্রশাসনের কাছে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী জানান নূর।  যদি কোনও কঠোর ব্যবস্থা না নেওয়া হয়, নূর তার সাথে সমস্ত ট্রান্সজেন্ডারদের নিয়ে বিধানসভার দিকে যাত্রা করবে।  সমাবেশের কাছে প্রতিবাদ করবে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad