গ্যাসের ড্রপ কী শিশুদের জন্য আদৌ নিরাপদ? কী বলছেন চিকিৎসকরা - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 11 May 2022

গ্যাসের ড্রপ কী শিশুদের জন্য আদৌ নিরাপদ? কী বলছেন চিকিৎসকরা


গ্যাসের সমস্যা হওয়া খুবই সাধারণ ব্যাপার।  এই সমস্যা শুধু বড়দের নয়, ছোট বাচ্চাদেরও গ্যাসের সমস্যা হতে পারে।  কারণ শিশুদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা খুব বেশি শক্তিশালী নয়, যার কারণে তারা তাদের খাবার ভালোভাবে জানে না।  যখন গ্যাসের সমস্যা হয়, তখন কিছু অভিভাবক মনে করেন যে এটি নিজে থেকেই ভালো হয়ে যাবে। একই সময়ে, কিছু অভিভাবক বিভিন্ন ব্যবস্থা গ্রহণ শুরু করে।  কিছু অভিভাবক তাদের সন্তানদের গ্যাসের সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে গ্যাসের ফোঁটা বেছে নেন।  কিন্তু গ্যাসের ড্রপ ব্যবহার করা কি নিরাপদ? গ্যাস ড্রপ কিভাবে ব্যবহার করবেন? এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর জানা যাবে নয়ডার নিউ হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডাঃ বিকাশ কুমার আগরওয়ালের কাছ থেকে।  আসুন জেনে নিই কিভাবে শিশুদের জন্য গ্যাস ড্রপ ব্যবহার করবেন এবং কতটা নিরাপদ।


 গ্যাস ড্রপ কি?  


গ্যাস ড্রপ একটি ওষুধ।  শিশুদের বদহজম, গ্যাস, পেটে ব্যথা বা অন্য কোনো পেট সংক্রান্ত সমস্যা হলে এই ওষুধটি দেওয়া হয়।  ডক্টর বিকাশ কুমার ব্যাখ্যা করেছেন যে কিছু অভিভাবক শিশুদের হজম সংক্রান্ত সমস্যা নিরাময়ের জন্য ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়াই এই ওষুধটি ব্যবহার করেন, যা একেবারেই ভুল।  শিশুদের ক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া যেকোনো ওষুধ ব্যবহার প্রাণঘাতী হতে পারে।



 গ্যাসের ফোঁটা কি শিশুদের জন্য নিরাপদ?


চিকিৎসক বলছেন যে গ্যাস ড্রপ ব্যবহার শিশুদের জন্য নিরাপদ বলে মনে করা হয়।  এর ব্যবহারে পেটের সমস্যা দূর করা যায়।  তবে এটি শুধুমাত্র ডাক্তারের পরামর্শে ব্যবহার করুন।  কারণ কিছু গ্যাস ড্রপে সিমেথিকোন থাকে, যার একটি কৃত্রিম গন্ধ থাকে।  এই রাসায়নিক শিশুদের জন্য নিরাপদ বলে মনে করা হয় না।  তাই শিশুদের গ্যাসের যে কোনো ড্রপ দেওয়ার আগে একবার চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।  এছাড়াও, আপনি নিজেই ওষুধের উপাদানগুলি পরীক্ষা করুন, যাতে আপনি এতে উপস্থিত জিনিসগুলি সম্পর্কে জানতে পারেন।  আপনার সন্তানের অ্যালার্জি আছে এমন কিছু আছে কি?  তাই গ্যাসের ফোঁটা ব্যবহারের আগে সতর্ক হোন।


 কিভাবে শিশুদের গ্যাস ড্রপ দিতে?


 চিকিত্সকরা জানান, শিশু বা বড় শিশুদের বয়স অনুযায়ী গ্যাসের ড্রপ দেওয়া হয়।  অতএব, গ্যাসের ড্রপ দেওয়ার আগে, আপনার শিশুকে 1 দিনে কত ডোজ দিতে হবে তা ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করতে ভুলবেন না।  এ ছাড়া চিকিৎসকের নির্দেশিত ডোজ যথাযথভাবে অনুসরণ করুন।  শিশু বা শিশুকে কখনই ওভারডোজ দেবেন না।  কারণ এতে তাদের সমস্যা বাড়তে পারে। 


 গ্যাস ফোঁটার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া?


 ডাক্তার বলেছেন, বাচ্চাদের সঠিক পরিমাণে গ্যাসের ফোঁটা দিলে তাদের কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয় না।  যাইহোক, কিছু ক্ষেত্রে গ্যাস ড্রপ একটি অ্যালার্জি প্রতিক্রিয়া ঘটতে পারে।  যেমন-


 শ্বাসযন্ত্রের মর্মপীড়া


 মুখের চুলকানি ও ফোলাভাব


 জিহ্বা এবং গলা ফুলে যাওয়া


 ত্বকে ফুসকুড়ি।


 মাথা ঘোরা।


 যদি শিশুদের মধ্যে এই ধরনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা যায়, অবিলম্বে একজন ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন।  যাতে ডাক্তার সঠিক সময়ে চিকিৎসা করতে পারেন।



 অন্যান্য গ্যাস ড্রপ বিকল্প


 আপনি যদি আপনার শিশুর হজম শক্তিকে শক্তিশালী করতে চান, তাহলে গ্যাসের ফোঁটা না দিয়ে অন্য কিছু দিতে পারেন।  যেমন-


 প্রোবায়োটিকস


 প্রোবায়োটিক হল ভালো ব্যাকটেরিয়া, যা বাজারে তরল আকারেও পাওয়া যায়।  বাচ্চাদের প্রোবায়োটিক দিলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী হয়।  এর সাহায্যে বাচ্চাদের গ্যাস, ফোলা সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।


 গ্রাইপ জল


 বেশির ভাগ মানুষই বাচ্চাদের দাঁত বেরোতে শুরু করলে তাদের গ্রাইপ ওয়াটার দেন।  দাঁত তোলার সময় শিশুদের ডায়রিয়া হওয়ার প্রবণতা বেশি।  এমন পরিস্থিতিতে বড়দের পরামর্শ দেওয়া হয় বাচ্চাদের গ্রাইপ ওয়াটার দেওয়ার জন্য।  এছাড়া গ্যাস ড্রপের বিকল্প হিসেবে গ্রাইপ ওয়াটার ব্যবহার করতে পারেন।  এটি শিশুদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে।


 মনে রাখবেন, শিশুদের কোনো ধরনের ওষুধ দেওয়ার আগে একবার চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।  যাতে তারা ওই ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থেকে রক্ষা পায়।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad