কান চলচ্চিত্র উৎসব: রেড কার্পেটে কাপড় খুলে চিৎকার, মহিলার প্রতিবাদের ধরণে স্তম্ভিত বিশ্ববাসী - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Saturday, 21 May 2022

কান চলচ্চিত্র উৎসব: রেড কার্পেটে কাপড় খুলে চিৎকার, মহিলার প্রতিবাদের ধরণে স্তম্ভিত বিশ্ববাসী


কান চলচ্চিত্র উৎসবের রেড কার্পেটে সবাইকে চমকে দেন এক নারী। তিনি এখানে তার কাপড় খুলে জোরে চিৎকার করতে থাকেন 'আমাদের ধর্ষণ বন্ধ করো'। শুক্রবার একা এখানে এসে ইউক্রেন যুদ্ধের প্রতিবাদ করেছেন ওই নারী। তিনি ইউক্রেনের পতাকার রং দিয়ে নিজের শরীর এঁকেছিলেন, যেখানে ধর্ষণ সংক্রান্ত স্লোগান লেখা ছিল। মহিলা বিক্ষোভকারীর শরীরের নীচের অংশ লাল রঙ করা হয়েছিল। তিনি জোরে জোরে স্লোগান দিচ্ছিলেন। এরপর তাঁর অনেক ছবি তোলা হয়। পরবর্তীতে নিরাপত্তারক্ষীরা সেখানে এসে তাকে নিয়ে যান।


 গত মাসের শুরুর দিকে, ইউক্রেনের রাষ্ট্রপতি ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছিলেন যে, তদন্তকারীরা রাশিয়ান সেনাদের দখলে থাকা অঞ্চলে "শতশত ধর্ষণের মামলার" রিপোর্ট পেয়েছেন। এমনকি ছোট শিশুরাও এখানে যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে। অভিনেতা থেকে রাজনীতিবিদ হওয়া জেলেনস্কি মঙ্গলবার কান উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাহায্যের আবেদন জানিয়ে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন। এবারের কান উৎসবের থিম রাখা হয়েছে যুদ্ধ। যার অধীনে বৃহস্পতিবার 'মারিওপলিস 2'-এর স্ক্রিনিং হয়েছিল, যা একটি তথ্যচিত্র।

 

এই তথ্যচিত্রটি নির্মাণ করেছেন লিথুয়ানিয়ার পরিচালক মানতাস কোয়াদারভিসিয়াস। গত মাসে মারিউপোলে রুশ সেনাবাহিনীর হাতে নিহত হন বলে অভিযোগ। শনিবার ইউক্রেনীয় চলচ্চিত্র নির্মাতাদের জন্য একটি বিশেষ দিন হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে। 


এর মধ্যে পরিচালক সের্গেই লগনিৎসা 'ন্যাচারাল হিস্ট্রি অফ ডিস্ট্রাকশন' স্ক্রিন করবেন, যেটিতে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জার্মান শহরগুলিতে বোমা হামলার কথা বলা হয়েছে। রাশিয়ার হামলায় ইউক্রেনের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিও সমস্যায় পড়েছে। রাশিয়া এ দেশের সুন্দর শহরগুলোকে ধ্বংসস্তূপে পরিণত করেছে।


এই কিছুক্ষণ আগে খবর আসে, রাশিয়া শুক্রবার মারিউপোল দখলের দাবী করেছে, যা যুদ্ধে এখন পর্যন্ত তার সবচেয়ে বড় বিজয় হতে পারে। প্রায় তিন মাস ধরে রুশ সৈন্যদের অবরোধের মধ্যে থাকা বন্দর শহরটি এখন ধ্বংসস্তূপের স্তূপে পরিণত হয়েছে এবং ২০,০০০ বেসামরিক লোকের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে। 


রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগু প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে মারিউপোলের আজোভটাল স্টিল প্ল্যান্ট এবং পুরো শহরের সম্পূর্ণ মুক্তির বিষয়ে অবহিত করেছেন। এই ইস্পাত কারখানা ইউক্রেনীয় প্রতিরোধের প্রতীক হয়ে ওঠে। ইউক্রেন এখনও এটি নিশ্চিত করেনি।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad