এক ধাক্কায় অনেকটাই বাড়ল সামরিক শক্তি! অগ্নি-৪ ক্ষেপণাস্ত্রের সফল উৎক্ষেপণ ভারতের - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Tuesday, 7 June 2022

এক ধাক্কায় অনেকটাই বাড়ল সামরিক শক্তি! অগ্নি-৪ ক্ষেপণাস্ত্রের সফল উৎক্ষেপণ ভারতের


ভারত ক্রমাগত তার সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করছে। এই ধারাবাহিকতায় সোমবার ওড়িশার এপিজে আবদুল কালাম দ্বীপে ভারতের শক্তিশালী মধ্যবর্তী রেঞ্জের ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র অগ্নি-৪ পরীক্ষা করা হয়েছে। প্রশিক্ষণ লঞ্চ হিসেবে অগ্নি-৪ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করা হয়েছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রক জানিয়েছে, সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় অগ্নি-৪ ক্ষেপণাস্ত্রের এই পরীক্ষা করা হয়েছে।


প্রতিরক্ষা মন্ত্রক থেকে বলা হয়েছে যে, এই সময়ে এর সমস্ত প্যারামিটার পরীক্ষা করার পাশাপাশি সিস্টেমটিও পরীক্ষা করা হয়েছিল। স্ট্র্যাটেজিক ফোর্সেস কমান্ডের অধীনে এই উৎক্ষেপণটি ছিল রুটিন ব্যবহারকারী প্রশিক্ষণের অংশ। এই সফল পরীক্ষা ভারতের নির্ভরযোগ্য ন্যূনতম প্রতিরোধের নীতিকে শক্তিশালী করে। ভারতের এই শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্রের নকশা তৈরি করেছে প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা (ডিআরডিও)। একই সময়ে, এটি ভারত ডায়নামিক্স লিমিটেড দ্বারা তৈরি করা হয়েছে।


অগ্নি-৪ মিসাইলের মোট ওজন ১৭ হাজার কেজি পর্যন্ত। এর দৈর্ঘ্য ২০ মিটার। বিস্ফোরক আকারে কৌশলগত পারমাণবিক অস্ত্র বহন করার ক্ষমতাও রয়েছে এর। এটি ৯০০ কিলোমিটার উচ্চতায়ও উড়তে পারে। আঘাত হানতে পারে ৪ হাজার কিলোমিটার পর্যন্ত, তাও নির্ভু‌ল ভাবে। এছাড়াও এতে অনেক আধুনিক যন্ত্রপাতি স্থাপন করা হয়েছে। এটিতে একটি রিং লেজার গাইরো ইনর্শিয়াল নেভিগেশন সিস্টেমও রয়েছে। এর ফায়ার পাওয়ার সঠিক।


এর আগে ৩১ মে, প্রতিরক্ষা মন্ত্রক, ভারত ডায়নামিক্স লিমিটেডের (বিডিএল) সাথে এয়ার-টু-এয়ার অ্যাস্ট্রা এমকে-আই মিসাইল এবং সম্পর্কিত সরঞ্জাম কেনার জন্য ২,৯৭১ কোটি টাকার একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছিল। মন্ত্রক বলেছিল যে, ভারতীয় বায়ুসেনা এবং ভারতীয় নৌবাহিনীর জন্য ক্ষেপণাস্ত্রগুলি সংগ্রহ করা হচ্ছে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রক বলেছিল যে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর স্বনির্ভর ভারতের স্বপ্নকে উত্সাহিত করার জন্য এই ক্ষেপণাস্ত্রগুলি কেনা হচ্ছে।


'Astra Mk-I BVR AAM' ভারতীয় বিমান বাহিনীর প্রয়োজনীয়তা অনুসারে প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা (DRDO) দ্বারা দেশীয়ভাবে ডিজাইনও বিকশিত করা হয়েছে। মন্ত্রকের মতে, ভিজ্যুয়াল রেঞ্জের বাইরে (BVR) এয়ার-টু-এয়ার স্ট্রাইক ক্ষমতা সহ এই ক্ষেপণাস্ত্রগুলি বিমান বাহিনীর ফাইটার জেটকে শক্তি জোগায়। Astra Mk-I ক্ষেপণাস্ত্র এবং এর উৎক্ষেপণ ও পরীক্ষার জন্য সমস্ত সংশ্লিষ্ট সিস্টেম DRDO দ্বারা ভারতীয় বায়ুসেনার সমন্বয়ে বিকশিত করা হয়েছে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad