অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক রাজ্যপাল ধনখড়ের! - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Tuesday, 7 June 2022

অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক রাজ্যপাল ধনখড়ের!


সোমবার নয়াদিল্লিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। অমিত শাহের সঙ্গে রাজ্যপাল ধনখড়ের বৈঠককে রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। রাজ্যপাল ক্রমাগত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে আক্রমণ করছেন এবং রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন। বারবার প্রকাশ্যে আসছে রাজ্য-রাজ্যপাল সংঘাত। একদিকে এসএসসি নিয়োগ কেলেঙ্কারি এবং সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর পদে রাজ্যপালের পরিবর্তে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে প্রশ্ন উঠছে রাজ্য সরকারের ওপর। অন্যদিকে ৭ জুন সন্ধ্যায় বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা দুদিনের বাংলা সফরে আসছেন। এমন পরিস্থিতিতে রাজ্যপাল ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক ঘিরে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক জল্পনা। যদিও বৈঠকের বিষয়ে কোনও তথ্য জানানো হয়নি।


উল্লেখ্য, রাজ্যপাল ধনখর রাজস্থানের উদয়পুর সফরে গিয়েছিলেন। রাজস্থান সফর থেকে ফেরার সময় তিনি সোমবার নয়াদিল্লিতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করেন। সূত্র বলছে, রাজ্যপাল রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে সম্পূর্ণ রিপোর্ট দিয়েছেন। রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় নিজেই ট্যুইট করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের কথা জানিয়েছেন। যদিও তিনি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে কোন বিষয়ে আলোচনা করেছেন তা প্রকাশ করেননি, তবে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে, রাজ্যপাল অমিত শাহকে রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য দিয়েছেন। 



সম্প্রতি উত্তরবঙ্গ সফর থেকে ফিরেছেন রাজ্যপাল। আলাদা রাজ্যের দাবী উঠছে উত্তরবঙ্গে। সূত্রের খবর, উত্তরবঙ্গের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে রাজ্যপাল অমিত শাহকে অবহিত করেছেন। এর পাশাপাশি দার্জিলিংয়ে জিটিএ নির্বাচন রয়েছে। বিজেপি এই নির্বাচন বয়কট করছে। রাজ্যপাল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে দার্জিলিংয়ের পরিস্থিতি সম্পর্কেও অবহিত করেছেন।


রাজ্যপাল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লাগাতার সরকারকে আক্রমণ করছেন। রাজ্যপাল উদয়পুরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে বলেন যে, তাঁর রাজ্যে আইনের শাসন নেই কারণ এটি একজন "শাসক" দ্বারা শাসিত হচ্ছে। তিনি আরও বলেন যে, পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল থাকাকালীন তিনি মারাত্মক পরিস্থিতি এবং চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন। তিনি বলেন, “আমি গভর্নর হিসেবে ভয়াবহ পরিস্থিতি ও চ্যালেঞ্জ দেখেছি। আমি শাসন ব্যবস্থাকে সাংবিধানিক ব্যবস্থার বাইরে যেতে দেখেছি। আমি এমন পরিস্থিতি দেখেছি যেখানে আইনের শাসন নেই, 'শাসকের' শাসন রয়েছে।'

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad