শিক্ষক নিয়োগ কারচুপি মামলায় CBI তদন্তে ক্ষুব্ধ বিচারপতি, SIT গঠনের নির্দেশ - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 15 June 2022

শিক্ষক নিয়োগ কারচুপি মামলায় CBI তদন্তে ক্ষুব্ধ বিচারপতি, SIT গঠনের নির্দেশ



কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় শিক্ষক নিয়োগ (বেঙ্গল এসএসসি কেলেঙ্কারি) মামলায় CBI তদন্তের গতি নিয়ে "অসন্তোষ" প্রকাশ করেছেন।  সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই) বুধবার হাইকোর্টকে তার তদন্তে আস্থার আশ্বাস দিয়েছে।  সিবিআই আদালতকে জানিয়েছে যে শিক্ষক নিয়োগ অনিয়মের বিষয়টি তদন্ত করতে শীঘ্রই দিল্লী থেকে একজন উচ্চপদস্থ আধিকারিক আসতে চলেছেন।  তার নেতৃত্বে তদন্ত চলবে।  তদন্ত সংস্থার এই আশ্বাস সত্ত্বেও, বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় তদন্ত নিয়ে "অসন্তোষ" প্রকাশ করেছেন এবং সিবিআই তদন্তের জন্য একটি বিশেষ তদন্ত দল (এসআইটি) গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন।  এই টিম আদালতের তত্ত্বাবধানে কাজ করবে এবং মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত এই তদন্তকারী আধিকারিকদের বদলি করা হবে না।  বিচারক প্রকাশ্যে তিনি সন্দেহ প্রকাশ করেন, দুর্নীতির মাস্টারমাইন্ড আদৌ ধরা পড়বে কি না?




 বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় মন্তব্য করেছেন যে সিবিআই তদন্তে খুব বেশি অগ্রগতি হয়নি, যদিও তাঁর নির্দেশের পরে অনেক সময় কেটে গেছে।  তিনি আরও বলেন, সিবিআইয়ের থেকে এসআইটি ভালো।



বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় বলেছেন, সিবিআই তদন্ত হবে আদালতের তত্ত্বাবধানে।  সিবিআই আধিকারিকদের নিয়ে একটি বিশেষ তদন্ত দল থাকবে, যাদের নাম জানাতে হবে।  সিবিআইকে 17 জুনের মধ্যে তালিকা দিতে হবে।  সিবিআই-এর যুগ্ম পরিচালক স্তরের অফিসারের তত্ত্বাবধানে এই এসআইটি কাজ করবে।  যুগ্ম পরিচালকের নাম আদালতকে জানাতে হবে, যা তদন্ত করবে।  আদালত বলেছেন, তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত এই দলের কোনও সদস্যকে বদলি করা যাবে না।  তিনি বলেন, “এখন পর্যন্ত সিবিআই তদন্ত সন্তোষজনক নয়।  আমি আশা করি সিবিআই এমন তদন্ত করবে বলে আদালত হতাশ হবেন না।  আদালত তাদের বড় দায়িত্ব দিয়েছে।"


 

 বুধবার, সিবিআইয়ের কৌঁসুলি বিলবদল ভট্টাচার্য আদালতে বলেছিলেন যে স্কুলে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির তদন্তের জন্য দিল্লী থেকে কেবল একজন যুগ্ম পরিচালক আনা হচ্ছে।  শীঘ্রই রাজ্যে অফিসাররা আসছেন।  সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (সিবিআই) আদালতকে আশ্বস্ত করেছে যে খুব শীঘ্রই দোষীদের চিহ্নিত করা হবে।  সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন আশ্বাস দিয়েছে যে কোনও অপরাধীকে ছাড় দেওয়া হবে না।  সিবিআই কৌঁসুলির মন্তব্যের পর বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, "তবে আপনি কতটা করতে পারবেন তা নিয়ে এখনও সন্দেহ আছে।"  বিচারক গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, "আমি আর শারদা চাই না।  বাগ কমিটির রিপোর্ট হাতে আসার পরও এত দিন কিছু করতে পারলেন না কেন?  এখন পর্যন্ত দুর্নীতির কিং পিনকে (মূল অপরাধী) হেফাজতে নিতে পারিনি?  তাই দুর্নীতি চলতেই থাকবে।  এটা বন্ধ করা যাবে না।"


No comments:

Post a Comment

Post Top Ad