জেনে নিন ফ্রিজে তরমুজ রাখার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Thursday, 21 July 2022

জেনে নিন ফ্রিজে তরমুজ রাখার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

 






দেশে বেশিরভাগ এলাকায় আজকাল প্রচণ্ড গরম।এই গরমে নিজেকে হাইড্রেটেড রাখতে লোকেরা তাজা এবং রসালো ফল খায়।  তরমুজ সেইসব ফলের মধ্যে খুব জনপ্রিয়, কারণ এই ফলটিতে ৯০  শতাংশের বেশি জল রয়েছে।



 তরমুজ ফ্রিজে রাখার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া:


 আমরা যখন বাজার থেকে তরমুজ কিনে নিয়ে আসি তখন এর সাইজ অনেক বড় হয়। তরমুজকে অনেকক্ষণ তাজা রাখার জন্য ফ্রিজে রেখে দেই, কিন্তু তরমুজ কেটে ফ্রিজে রাখা ক্ষতিকারক হতে পারে।


 তরমুজ ফ্রিজে রাখলে ভিটামিন এ, ভিটামিন সি, লাইকোপিন এবং সিট্রুলাইনের মতো গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি উপাদানের পরিমাণ কমে যায়।  এছাড়াও, যদি এটি কেটে ফ্রিজে রাখা হয়, তবে এটি সংক্রমণের কারণ হতে পারে, যা পরবর্তীতে খাদ্যে বিষক্রিয়ার কারণ হতে পারে।  তাই তরমুজ টাটকা খাওয়াই ভালো।


 তরমুজ কতক্ষণ ফ্রিজে রাখা যায়?


 তরমুজ ফ্রিজে রাখার দরকার নেই কারণ এর খোসা শক্ত ও ঘন, যার কারণে এই ফল দ্রুত নষ্ট হয় না।  যদি না কেটে রেখে দিন তাহলে এটি প্রায় ২০ দিন রাখা যাবে।


 ফ্রিজে রাখা তরমুজ খাওয়ার অপকারিতা:


 ফলের পুষ্টিগুণ কমে যায়।

 ফ্রিজে তরমুজ রাখলে কাশি ও সর্দি হতে পারে।

 ফুড পয়জনিং হতে পারে

তরমুজে থাকা ব্যাকটেরিয়া অন্ত্রের ক্ষতি করতে পারে।

এভাবে তরমুজ খেলে পেট খারাপ হতে পারে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad