অমরাবতী হত্যাকাণ্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস! - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Saturday, 2 July 2022

অমরাবতী হত্যাকাণ্ডে চাঞ্চল্যকর তথ্য ফাঁস!


রাজস্থানের উদয়পুরে এক দর্জিকে নৃশংসভাবে খুনের পর মহারাষ্ট্রের অমরাবতীর উমেশ কোলহে খুনের ঘটনা গোটা দেশকে চমকে দিয়েছে। অমরাবতীতে উমেশ কোলহে খুনের ঘটনায় নূপুর শর্মার সমর্থন নিয়েও আলোচনা জোরদার হয়েছে। এদিকে নিহতের ভাই উমেশ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অনেক তথ্য জানিয়েছেন।


উমেশের ভাই মহেশ কোলহে সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর সাথে কথা বলার সময় বলেন, 21 জুন রাতে, আমার ভাই দোকান বন্ধ করে বাড়িতে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন, তখন আক্রমণকারীরা তাকে ঘিরে ফেলে। হামলাকারীরা ছুরি দিয়ে উমেশকে বেশ কয়েকটি আঘাত করে। আমি সেখানে পৌঁছানোর আগেই তিনি মারা যায়।


খুনের পিছনে কারণ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করা হলে, মহেশ কোলহে বলেন, 'আমরা এখনও তার খুনের কারণ সম্পর্কে কোনও তথ্য পাইনি। এমনকি হুমকির কথাও তিনি আমাদের জানাননি। তিনি কিছু হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে নূপুর শর্মাকে নিয়ে মেসেজ ফরওয়ার্ড করেছিলেন। তিনি এই মেসেজগুলো শুধুমাত্র গ্রুপে করেছেন, ব্যক্তিগতভাবে কাউকে ফরওয়ার্ড করেননি।'


প্রসঙ্গত, কানহাইয়ালাল, একজন দর্জি, যিনি বিজেপির প্রাক্তন মুখপাত্র নূপুর শর্মার সমর্থনে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন, কয়েকদিন আগে তাকে নির্মমভাবে খুন করা হয়েছিল। খুনিরা পুরো ঘটনার ভিডিওও তৈরি করেছে। এখন মহারাষ্ট্রের অমরাবতী থেকেও একই ধরনের ঘটনার কথা সামনে আসছে। নূপুরের সমর্থনের জন্য 54 বছর বয়সী রসায়নবিদ উমেশ কোলহেকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছিল।


স্থানীয় বিজেপি নেতারা উমেশ প্রহ্লাদরাও কোলহে খুনের বিষয়ে পুলিশের কাছে একটি চিঠি জমা দিয়েছেন। অভিযোগ করেছেন যে তাকে উদাহরণ তৈরি করতে খুন করা হয়েছে। বিজেপি নেতাদের চিঠির বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে যে, এই ঘটনায় একটি এফআইআর নথিভুক্ত করা হয়েছে এবং ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


কোলহে অমরাবতী শহরে একটি মেডিক্যাল স্টোর চালাতেন। তিনি নূপুর শর্মার সমর্থনে কয়েকটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে একটি পোস্ট শেয়ার করেছিলেন বলে জানা গেছে। তিনি ভুলবশত একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে পোস্টটি শেয়ার করেছেন যেখানে তার গ্রাহক সহ কিছু মুসলিম সদস্য ছিল।


এমএইচএ-র মতে, এনআইএর একটি দল অমরাবতীতে পৌঁছেছে এবং তদন্তের দায়িত্ব নেবে। দলটি বিষয়টি তদন্ত করছে এবং মহারাষ্ট্র পুলিশের কাছ থেকে তথ্য নিচ্ছে। একটি ট্যুইট বার্তায়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক বলেছে যে, এমএইচএ অমরাবতীতে উমেশ কোলহের নৃশংস হত্যাকাণ্ডের মামলার তদন্ত এনআইএ-কে হস্তান্তর করেছে। হত্যাকাণ্ডের পেছনে ষড়যন্ত্র, সংগঠনগুলোর সম্পৃক্ততা ও আন্তর্জাতিক সম্পর্ক ভালোভাবে তদন্ত করা হবে।


মহারাষ্ট্র ATS টিম বর্তমানে বিষয়টি তদন্ত করছে। এটিএস সূত্র জানিয়েছে যে, তারা এই মামলায় কোনও সন্ত্রাসী কোণ আছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে। উদয়পুরের অভিযুক্তদের মতো অমরাবতীর অভিযুক্তরাও একই প্যাটার্ন ব্যবহার করেছিল কিনা, তাও খতিয়ে দেখছে এটিএস। এ ঘটনায় যে ছুরিটি ব্যবহার করা হয়েছে, তা বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজও পেয়েছে পুলিশ। এতে ঘটনার অনেক ছবি ধরা পড়ে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad