মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে নিরাপত্তা লঙ্ঘনের পর সতর্ক পুলিশ! - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Tuesday, 19 July 2022

মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে নিরাপত্তা লঙ্ঘনের পর সতর্ক পুলিশ!



সমস্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা লঙ্ঘন করে কালীঘাটে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাসভবনে শার্টে রড লুকিয়ে হাফিজুল নামে এক ব্যক্তি ঢুকতে পরে।  ওই ঘটনার পর কলকাতা পুলিশ ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিরাপত্তায় নিয়োজিত নিরাপত্তা আধিকারিকরা সতর্ক হয়ে গেছেন।  21শে জুলাই কলকাতায় তৃণমূল শহীদ সভার আয়োজন করছে।  তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, যিনি শহিদ দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখবেন, তার নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।  তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে খবর, রেকর্ড সংখ্যক তৃণমূল কংগ্রেস এদিন বৈঠকে অংশ নেবে।  21শে জুলাইয়ের সভার জন্য সোমবার থেকে জেলাগুলি থেকে সমর্থকরা কলকাতায় পৌঁছতে শুরু করেছেন।





 মঙ্গলবার কলকাতা পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, শহিদ দিবসের কর্মসূচিতে শুধুমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্য আলাদা গেট তৈরি করা হচ্ছে।  ধর্মতলায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া দলের সবচেয়ে বড় এই কর্মসূচিতে যোগ দিতে রাজ্যজুড়ে তৃণমূলের কর্মী-সমর্থকরা পৌঁছে যাবেন কলকাতায়।  সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্ক এবং কসবার গীতাঞ্জলি স্টেডিয়ামে তাদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে।



প্রস্তুতি দেখতে সোমবার গীতাঞ্জলি স্টেডিয়ামে পৌঁছেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।  তৃণমূলের তরফে জানানো হয়েছে, গীতাঞ্জলি স্টেডিয়ামে অন্তত 20 হাজার লোকের থাকার ব্যবস্থা করতে হবে।  21শে জুলাই আলিপুরের কালীঘাটের বাড়ি থেকে মুখ্যমন্ত্রীর কনভয় যে রাস্তা দিয়ে যাবে সেই রাস্তার দুপাশই সাজানো হয়েছে।  কলকাতা ট্রাফিক পুলিশ সতর্কতা হিসেবে সারাদিনের জন্য কলকাতার অনেক রাস্তাকে ওয়ান-ওয়ে ঘোষণা করেছে।  এছাড়া অনুষ্ঠানস্থলে বসানো হয়েছে ওয়াচ টাওয়ার।  কলকাতা পুলিশের সমস্ত শাখার ডিসিদের অনুষ্ঠানস্থলের নিরাপত্তা পর্যবেক্ষণের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।  কলকাতার সর্বত্র পোস্টার লাগানো হয়েছে।  বিজেপির মিডিয়া ইনচার্জ তুষার কান্তি ঘোষ কটাক্ষ করেছেন যে সিনেমা হলের বাইরে সিনেমার পোস্টার লাগানো হয়েছে, তবে শহীদ সভার পোস্টারও লাগানো হয়েছে।


 

 21 জুলাই, 1993-এ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে রাইটার্স ক্যাম্পেইনের সময় 13 জন প্রাণ হারিয়েছিলেন।  সেই সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যুব কংগ্রেসের সভাপতি ছিলেন, কিন্তু তৃণমূল কংগ্রেস গঠনের পর থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতি বছর 21শে জুলাইকে শহীদ দিবস হিসেবে পালন করে আসছেন।  তখন যুব কংগ্রেসের সভাপতি ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় করোনা মহামারির কারণে গত দুই বছর ধরে ভার্চুয়াল শহিদ সভা করে আসছেন, তবে এবার ব্যাপকভাবে সভা আয়োজনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।


No comments:

Post a Comment

Post Top Ad