দ্রুত গতিতে ঘুরছে পৃথিবী! সময় লাগছে ২৪ ঘন্টারও কম, কী বলছেন বিজ্ঞানীরা? - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Monday, 1 August 2022

দ্রুত গতিতে ঘুরছে পৃথিবী! সময় লাগছে ২৪ ঘন্টারও কম, কী বলছেন বিজ্ঞানীরা?


পৃথিবী কি এখন তার স্বাভাবিক গতির চেয়ে দ্রুত ঘোরে? পৃথিবী কি এখন ২৪ ঘন্টারও কম সময়ে একবার চক্কর কাটছে? গত কয়েক মাসে এসব প্রশ্নের উত্থান হয়েছে। আসলে, বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন যে পৃথিবী প্রবল গতিতে ঘুরছে। পৃথিবীর ঘূর্ণনের গতি এতটাই দ্রুত যে চব্বিশ ঘণ্টায় যে ঘূর্ণন সম্পন্ন হয়, তার আগেই তা শেষ হয়ে যাচ্ছে। তথ্য অনুসারে, ২৯ জুন, ২০২২-এ, পৃথিবী তার অক্ষে একটি চক্কর সম্পূর্ণ করতে ২৪ ঘন্টারও কম সময় নেয়। এই দিনে পৃথিবী মাত্র ১.৫৯ মিলিসেকেন্ডে তার ঘূর্ণন সম্পন্ন করেছিল, যা গড় গতির চেয়ে বেশি।


ইন্ডিপেনডেন্টের রিপোর্ট অনুযায়ী, সাম্প্রতিক সময়ে পৃথিবী খুব দ্রুত তার গতি বাড়িয়েছে। ২০২০ সালে, পৃথিবীর দ্রুত গতির কারণে, জুলাই মাসটিকে সবচেয়ে ছোট হিসাবে দেখা হয়েছিল। এর আগে ১৯৬০- ষাটের দশকে এমন পরিস্থিতি দেখা গিয়েছিল। ১৯ জুলাই ছিল পরিমাপ করা সবচেয়ে ছোট দিন। কারণ এই দিনে পৃথিবী ১.৪৭ মিলিসেকেন্ডে তার ঘূর্ণন সম্পন্ন করেছিল। যেখানে এই বছরের ২৬ জুলাই পৃথিবী ১.৫০ মিলিসেকেন্ডে সম্পূর্ণভাবে ঘোরে। রিপোর্ট অনুযায়ী, পৃথিবীর গতি ক্রমাগত বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে, যদি দীর্ঘ সময়ের ভিত্তিতে দেখা হয়, পৃথিবীর ঘোরার গতি ধীর হয়ে যাচ্ছে। পৃথিবী এক চক্কর সম্পূর্ণ করতে যত মিলিসেকেন্ড সময় নেয়, এখন প্রতি শতাব্দীতে তার চেয়ে বেশি সময় নিচ্ছে।


এর যদিও বিভিন্ন কারণ রয়েছে। বিজ্ঞানীরা মনে করেন, অভ্যন্তরীণ ও বাইরের স্তর, মহাসাগর, জোয়ার-ভাটা বা জলবায়ুর ক্রমাগত পরিবর্তনের কারণে এসব পরিবর্তন ঘটছে। কয়েকজন বিজ্ঞানী এও পরামর্শ দিয়েছেন যে, দিনের ক্রমবর্ধমান দৈর্ঘ্য চ্যান্ডলার ওয়াবল-এর সাথে সম্পর্কিত হতে পারে, যা পৃথিবীর ঘূর্ণনের অক্ষের একটি ছোট বিচ্যুতি। পৃথিবী যদি এই ক্রমবর্ধমান গতিতে ঘুরতে থাকে, তাহলে এটি একটি নেতিবাচক লিপ সেকেন্ড শুরু করতে পারে। এর মানে হল পৃথিবী যে হারে সূর্যের চারপাশে ঘোরে সেই হারকে বজায় রাখতে হবে অটোমিক ঘড়ির মতো।


যদিও, একটি নেতিবাচক সেকেন্ড লিপ সম্ভাব্যভাবে আইটি সিস্টেমের জন্য অনেক সমস্যা সৃষ্টি করবে। মেটা সম্প্রতি একটি ব্লগ প্রকাশ করেছে, যেখানে বলা হয়েছে যে, সেকেন্ড লিপ বিজ্ঞানী এবং জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের উপকার করবে। কিন্তু এটি একটি বিপজ্জনক অভ্যাস, যা অনেক ক্ষতির কারণ হতে পারে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad