সন্ধ্যা নামতেই গৃহবন্দি গ্ৰামবাসীরা, কিসের আতঙ্ক? - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 21 September 2022

সন্ধ্যা নামতেই গৃহবন্দি গ্ৰামবাসীরা, কিসের আতঙ্ক?


শেয়ালের কামড়ে জখম দু'বছরের শিশুসহ ৪-৫ জন। সন্ধ্যে হলে বাইরে বেরোনো কার্যত বন্ধ। বেরোলেও দাঁ-হেশো- লাঠিসোটা নিয়ে বের হতে হচ্ছে। আতঙ্কে বাসিন্দারা। ঘটনা উত্তর ২৪ পরগনা জেলার, গোবরডাঙ্গার বেড়গুম-১ নম্বর পঞ্চায়েতের বাজে বেলিনি এলাকায়।


এলাকায় রাজার মতো চলছে শেয়ালের দল। যার-তার ওপর হামলে পড়ছে। সন্ধ্যে নামতেই কার্যত গৃহবন্দি এলাকার বাসিন্দারা। কোনও কারণে প্রয়োজন হলে লাঠিসটা- দা-হেশো- উইকেট, নিয়ে বের হন বাসিন্দারা। শিয়ালের কামড়ে জখম হয়েছেন এখনও পর্যন্ত চার-পাঁচ জন, যাদের মধ্যে দু'বছরের একটি শিশুও রয়েছে। শেয়াল তাকে কামড়ে জঙ্গলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছিল। বাড়ির মহিলারা প্রতিআক্রমণ করলে শেয়াল পিছু হটতে বাধ্য হয়। ঘটনায় আতঙ্কিত এলাকার বাসিন্দারা।  


রবিবার থেকে এলাকায় শেয়ালের উৎপাত বেড়ে গিয়েছে। আগে মাঝে-মধ্যে হাঁস-মুরগি ছাগল ছানা নিয়ে যেতো শেয়াল। তবে এখন তাদের টার্গেট মানুষ। লাঠি নিয়ে তাড়া করলেও উল্টো তেড়ে আসছে শিয়াল, এমনই জানাচ্ছেন বাসিন্দারা। বন দফতরের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন বাসিন্দারা, পঞ্চায়েতের তরফেও বন দফতরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে। কীভাবে এর সুরাহা মিলবে বুঝতে পারছেন না তারা। 


কিছুদিন আগে শেয়ালের আতঙ্কে অতিষ্ঠ হয়েছিলেন দেগঙ্গার বাসিন্দারা। কয়েকজন শেয়ালের কামড়ে জখম হয়। এবারে আতঙ্ক গোবরডাঙ্গায়। আহতদের চিকিৎসা হয় হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতাল ও মছলন্দপুর ব্লক হাসপাতালে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad