বিশ্বের ৫টি বিপজ্জনক কুকুর - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Saturday, 10 September 2022

বিশ্বের ৫টি বিপজ্জনক কুকুর

 






আপনি হয়তো ছোটবেলা থেকেই শুনেছেন যে পৃথিবীর বিশ্বস্ত প্রাণী কুকুর।  কিন্তু এখন অনেক জায়গা থেকে এমন খবর আসতে শুরু করেছে যে কুকুর মালিক বা অন্য কাউকে কামড়েছে।  সম্প্রতি খবর এসেছে গাজিয়াবাদ থেকে, যেখানে একটি পিটবুল জাতের কুকুর ১১ বছরের একটি শিশুকে আক্রমণ করেছে।  এতে শিশুটি গুরুতর আহত হয় এবং তাকে ১৫০টি সেলাই দিতে হয়।  এই খবরে, আমরা আপনাকে একটি পিটবুল সহ বিশ্বের ৫টি বিপজ্জনক কুকুর সম্পর্কে বলব।  অনেক দেশ এই কুকুর পালনেও নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।  



১. আমেরিকান পিট বুল:

টেরিয়ার বা পিট বুল টেরিয়ার পিট বুল বিশ্বের সবচেয়ে বিপজ্জনক কুকুর হিসাবে বিবেচিত হয়।  পিট বুল প্রজাতির কুকুর আক্রমণাত্মক এবং খুব বিপজ্জনক।  এই জাতের কুকুরকে বিশ্বাস করা ঠিক নয়।  এমন অনেক ঘটনা ঘটেছে যখন এই জাতের কুকুর মালিককেও কামড় দিয়েছে।  বিশ্বের অনেক দেশই এই জাতের কুকুরের প্রজনন নিষিদ্ধ করেছে।  তবে আমেরিকাসহ অনেক দেশে এখনও পিট বুল পালন করা হয়।  তাদের আগ্রাসন ঠেকাতে আরও ভালো প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।


২. রট ভেলার:

 এই প্রজাতির কুকুর শক্তিশালী বলে মনে করা হয়।  এছাড়াও, তারা খুব দ্রুত কাউকে কামড়াতে পারদর্শী।  এটি অনেক দেশে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।  এই জাতটি তার তৎপরতার জন্য পরিচিত।  এ কারণেই তারা হুট করে কাউকে কামড়ায়।  এদের ওজন ৩৫ থেকে ৪৮ কেজির মধ্যে।  ভারতে অনেক বাড়িতে এটি পালন করা হয়।  


৩. সাইবেরিয়ান হুস্কি:

 সাইবেরিয়ান হুস্কি জাত পালন করা হয় না। এই কারণে, এই প্রজাতির কুকুর সমাজের সঙ্গে মিশে না।  কিন্তু, যদি তাদের প্রশিক্ষিত করা হয়, তাহলে এই জাতটিও বন্ধুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে এবং শান্ত থাকে।  এই কুকুরগুলির বিশেষ জিনিস হল যে তারা খাওয়ার এবং নিজেদের রক্ষা করার জন্য আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে।


৪. নেকড়ে হাইব্রিড:

নেকড়ে এবং কুকুরের প্রজনন থেকে উলফ হাইব্রিড কুকুরের অনেক জাত তৈরি করা হয়েছে।  এই কারণে, তাদের উলফ হাইব্রিড প্রজাতি বলা হয়।  এসব কুকুরের আক্রমণে বহু মানুষ মারা গেছে।  এ কারণে আমেরিকার অনেক রাজ্যে এই জাতের কুকুর পালন নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

৫. ডোবেরমান পিনসচের:

 ডোবেরমান পিনসচের জাতের কুকুর নিরাপত্তার জন্য রাখা হয়।  সেজন্য আপনি অবশ্যই তাদের বেশিরভাগ পুলিশ এবং সেনাবাহিনীর সঙ্গে দেখেছেন।  কখনও কখনও তাদের চেহারা এতটাই আক্রমণাত্মক হয় যে এটি চোর ধরতে সহায়তা করে।  আজকাল সাধারণ মানুষও তাদের বাড়িতে এটি পালন শুরু করেছে।  এই প্রজাতির কুকুর অপরিচিতদের দেখে আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে, তবে প্রায়শই তারা মালিকদের দেখে শান্ত হয়ে যায়।  এদের ওজন ৩৪ থেকে ৪৫ কেজি।  এটি অনেক দেশে নিষিদ্ধ।


No comments:

Post a Comment

Post Top Ad