প্রেম করার অপরাধে প্রেমিক যুগলকে তালিবানি শাস্তি - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 26 October 2022

প্রেম করার অপরাধে প্রেমিক যুগলকে তালিবানি শাস্তি



 প্রেম করার অপরাধে দম্পতিকে তালেবানি শাস্তি পঞ্চায়েতের। বিহার সমস্তিপুরের বিভূতিপুরে অন্য ধর্মের মেয়ের সঙ্গে প্রেম করায় প্রথম প্রেমিককে মারধরের পর তাকে দিয়ে ক্ষমা চাইয়ে নিল পঞ্চায়েতের লোকজন।  এর পরে, তাকে থুতু চাটার শাস্তি দেয়।



 উল্লেখ্য, দুই বছর আগে বিভূতিপুর থানা এলাকার একটি গ্রামে মোবাইলের মাধ্যমে প্রেমে জড়িয়ে পড়ে ভিন্ন ধর্মাবলম্বী এক দম্পতি। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তাদের মধ্যে প্রেম বাড়ে। তারা একসঙ্গে থাকার শপথ নেয়।



 এদিকে, প্রেমিক যুগল তাদের বসতি স্থাপনের জন্য বাড়ি থেকে পালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করে।  নির্ধারিত সময়ে  প্রেমিকা ওই যুবককে ডেকে তার বাড়ি ছেড়ে চলে যায়।  বিষয়টি জানতে পারেন প্রেমিকার পরিবারের সদস্যরা।  গ্রামের সীমান্ত এলাকা থেকে আত্মীয়-স্বজন ও গ্রামবাসীর হাতে ধরা পড়ে প্রেমিক যুগল।


 

 এরপরই প্রেমিকাকে বেধড়ক মারধর করে লোকজন।  প্রেমিক ও প্রেমিকা উভয়েই ভিন্ন ধর্মের।  এ নিয়ে গ্রামে দুই দলের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।  গ্রামে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ার পর কিছু বুদ্ধিজীবী দুই পক্ষের মধ্যে পঞ্চায়েত ডেকে বিষয়টি শান্ত করার চেষ্টা করেন।



 পরে পঞ্চায়েত তাদের ক্ষমা চাইয়ে নেয়। প্রেমিককে থুথু চাটার সাজা দেওয়া হয়।  এরপর প্রেমিকাকে জোর করে মাটিতে থুথু ফেলে চাটতে বলা হয়।  ছেলেটি এই শাস্তি মেনে নিলে বিষয়টি মিটে যায়।


 এরপর সতর্ক করে প্রেমিকাকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।  এ বিষয়ে বিভূতিপুর থানার এসকে পাল বলেন, "এ ধরনের কোনও ঘটনা তার নজরে নেই।  লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।"




একইসঙ্গে এই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর (ভিডিওর সত্যতা যাচাই করে নি প্রেসকার্ড নিউজ), সমস্তিপুরের এসপি হৃদয়কান্ত বিভূতিপুর থানায় পৌঁছে ঘটনার সম্পূর্ণ তথ্য নেন।  এসপি জানিয়েছেন যে কয়েকদিন আগে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল, যেটি সম্পর্কে বলা হয়েছিল যে যুবকের গায়ে থুথু দেওয়া হচ্ছে।  খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ভিডিওটি বিভূতিপুর থানা এলাকার চাখাবিব গ্রামের।



 এসপি বলেন, পুরো বিষয়টি একটি প্রেমের সম্পর্কে জড়িত।  এ ঘটনায় উভয় পক্ষের পক্ষ থেকে থানায় কোনও লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।  তাই প্রহরীর বক্তব্যের ভিত্তিতে এফআইআর নথিভুক্ত করা হয়েছে।  ভিডিও থেকে চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।



 বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর বিজেপির রাজ্য সভাপতি সঞ্জয় জয়সওয়াল ট্যুইট করে মহাজোট সরকারকে নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad