কারখানায় গ্যাস লিক! ফিরল ৩৮ বছর আগের ভয়াবহ স্মৃতি - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Thursday, 27 October 2022

কারখানায় গ্যাস লিক! ফিরল ৩৮ বছর আগের ভয়াবহ স্মৃতি


জলের কারখানায় গ্যাস লিকেজের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক আতঙ্ক ছড়াল মধ্যপ্রদেশের রাজধানী ভোপালের একটি কলোনিতে। শ্বাসকষ্ট ও চোখে জ্বালা-পোড়া, আতঙ্কে ঘরবাড়ি ছেড়ে রাস্তায় বাসিন্দারা। আচমকা এই 'গ্যাস কেলেঙ্কারি'র খবর প্রশাসনের কাছে পৌছাতেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে যান কালেক্টর ও পৌর কমিশনার।  গ্যাস লিক হওয়ার পর শ্বাস নিতে বেশি কষ্ট হওয়ায় ৩ জনকে হামিদিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে, যাদের অবস্থা এখন ভালো।


বুধবার রাতে ভোপালের মাদার ইন্ডিয়া কলোনিতে  ক্লোরিন গ্যাস লিকেজের ঘটনা ঘটে। চোখে জ্বালাপোড়া ও শ্বাসকষ্টে বস্তির প্রায় সব মানুষই ঘর থেকে বেরিয়ে আসেন। এলাকার লোকজন তাৎক্ষণাৎ প্রশাসনকে খবর দিলে পৌর কর্পোরেশনের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ভোপাল কালেক্টর এবং মিউনিসিপ্যাল ​​কর্পোরেশন কমিশনারও ঘটনাস্থলে পৌঁছান।


প্রাথমিক তদন্তের পর পৌরসভার দল জানতে পারে কলোনির পাশে নির্মিত ওয়াটার ফিল্টার প্লান্ট থেকে ক্লোরিন গ্যাস লিক হচ্ছে। প্লান্টে স্থাপিত প্রায় ৯০০ কেজি ওজনের একটি সিলিন্ডারের অগ্রভাগ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, যে কারণে ওই সিলিন্ডার থেকে গ্যাস লিক হচ্ছিল।


পৌরসভার দল গ্যাস লিকেজ বন্ধ করতে ক্রেনের সাহায্যে গ্যাস সিলিন্ডারটি জলে ফেলে দেয়। এরপর ৫ কেজি কস্টিক সোডা মিশিয়ে গ্যাস লিকেজ বন্ধ করা হয়। তিনজনের শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছিল, যাদের চিকিৎসা শেষে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।


এ ঘটনার পর সতর্কতা অবলম্বন করে আজ বৃহস্পতিবার দুর্গত এলাকায় জল সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন। ঘটনার খবর পেয়ে গ্যাস ত্রাণ মন্ত্রী বিশ্বাস সারং এবং ভোপালের মেয়র মালতি রাই হামিদিয়া হাসপাতালে পৌঁছে আহতদের অবস্থার খোঁজ-খবর নেন। গোটা ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন চিকিৎসা শিক্ষামন্ত্রী বিশ্বাস সারং। 


ভোপালে গ্যাস লিকেজের ঘটনা নিয়ে ট্যুইট করেছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেতা কমলনাথ। ঘটনার তদন্তের দাবী জানিয়ে তিনি বলেন, "মধ্যপ্রদেশের রাজধানী ভোপালের মাদার ইন্ডিয়া কলোনিতে ক্লোরিন গ্যাস ট্যাঙ্কের লিকেজের কারণে মানুষের চোখে জ্বালাপোড়া এবং শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে বলে জানা গেছে এবং কয়েকজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  নিহতদের চিকিৎসার পূর্ণাঙ্গ ব্যবস্থা করতে হবে, এ বিষয়ে তদন্ত করতে হবে, প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিতে হবে।"


প্রসঙ্গত, ভোপালে প্রায় ৩৮ বছর আগে গ্যাস লিকের ঘটনায় বহু লোক মারা গিয়েছিল। ১৯৮৪ সালের ২ এবং ৩ ডিসেম্বর মধ্যবর্তী রাতে গ্যাস ট্র্যাজেডির ঘটনায় হাজার হাজার মানুষ প্রাণ হারায়। আমেরিকান কোম্পানি ইউনিয়ন কার্বাইড ফ্যাক্টরিতে থাকা সব গ্যাস ট্যাঙ্কের মধ্যে ৬১০ নম্বর ট্যাঙ্ক থেকে মিথাইল আইসোসায়ানেট গ্যাস লিক হয়। ভোপালের কাজী ক্যাম্প এবং জেপি নগর (বর্তমানে আরিফ নগর) এবং এর আশেপাশের এলাকার মানুষ এই দুর্ঘটনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।


No comments:

Post a Comment

Post Top Ad