লটারিতে কোটিপতি তৃণমূল বিধায়কের স্ত্রী! শাহকে চিঠি লিখে তদন্তের দাবী শুভেন্দুর - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Friday, 28 October 2022

লটারিতে কোটিপতি তৃণমূল বিধায়কের স্ত্রী! শাহকে চিঠি লিখে তদন্তের দাবী শুভেন্দুর

 


তৃণমূল বিধায়ক বিবেক গুপ্তের স্ত্রী রুজিকা গুপ্তা লটারিতে জিতেছেন ১ কোটি টাকার বাম্পার পুরস্কার।  এর পরে,  বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করেছেন। ডিয়ার লটারির সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস নেতাদের যোগসাজশ রয়েছে বলে অভিযোগ শুভেন্দু অধিকারীর।  এর মাধ্যমে শাসক দল কালো টাকাকে সাদা করে দিচ্ছে।  শুভেন্দু অধিকারী দাবী করেন যে তৃণমূল কংগ্রেস নেতা এবং ভাইপোও এই সবের সাথে জড়িত। ডিয়ার লটারির সঙ্গে শাসক দলের যোগসাজশ রয়েছে বলে দাবী করেছেন বিজেপি নেতা।  একইসঙ্গে তিনি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে চিঠি লিখে গোটা বিষয়টির তদন্ত ইডি-র কাছে করার দাবী জানিয়েছেন।

 

 এই বছরের শুরুতে তৃণমূল কংগ্রেস নেতা অনুব্রত মন্ডল  ডিয়ার লটারির প্রথম পুরস্কার হিসাবে ১ কোটি টাকা জিতেছিলেন।  বর্তমানে, অনুব্রতকে গরু পাচারের মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং ইতিমধ্যে জোড়াসাঁকো থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের বিধায়ক বিবেক গুপ্তার স্ত্রী সম্প্রতি রুপির বাম্পার পুরস্কার জিতেছেন।  এরপরই বিষয়টি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে।



 ডিয়ার লটারি প্রসঙ্গে শুভেন্দু অধিকারী একটি ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, “আমি সবসময় বলেছি যে ডিয়ার লটারির সঙ্গে শাসক দল তৃণমূলের সরাসরি যোগ রয়েছে।  দরিদ্র ও মধ্যবিত্ত শ্রেণীর লোকেরাই বেশিরভাগই তাদের অর্থনৈতিক ভাগ্য পরিবর্তনের আশায় লটারি জিতে, কিন্তু সাধারণ মানুষ টিকিট কিনলেও লটারির জ্যাকপটের পুরস্কারের টাকা টলামুলি নেতাদের জন্য সংরক্ষিত থাকে।  অনুব্রত মন্ডল ডিয়ার লটারির প্রথম পুরস্কারে ১ কোটি রুপি জিতেছিলেন বলেও জানা গেছে।  তৃণমূল বিধায়ক বিবেক গুপ্তের স্ত্রী প্রথম পুরস্কারে ১ কোটি টাকা জিতেছেন।  আসলে তৃণমূল নেতাদের ভাগ্য, ডিয়ার (ভিআইপিপিও) লটারির প্রথম পুরস্কার পুরোপুরি সিল হয়ে গেছে।"



শুভেন্দু অধিকারীর দাবী, “আসলে এই লটারির আড়ালে বাংলায় কোটি কোটি টাকার আর্থিক দুর্নীতি হচ্ছে।  আমি গত বছর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ জিকে একটি চিঠিও দিয়েছিলাম যাতে বিষয়টি বিস্তারিত ছিল।"  পরে তিনি বাংলার মানুষের দুর্ভোগের কথা লিখেছিলেন, "আপনি সমগ্র পশ্চিমবঙ্গের যেদিকেই তাকান, বাসস্ট্যান্ডের বাজারে, লোকালয়ের কোণে, আপনি একটি ছোট টেবিল এবং চেয়ার দেখতে পাবেন যেখানে লটারি এজেন্টরা। উপবিষ্ট  সাধারণ শ্রমজীবী ​​দরিদ্র মানুষ রাতারাতি কোটিপতি হওয়ার জন্য তাদের কষ্টার্জিত অর্থ দিয়ে এই লটারি কিনতে প্রলুব্ধ হয় যা বেশ উদ্বেগজনক এবং দুর্নীতিগ্রস্ত তৃণমূল নেতাদের একটি অংশ এই অর্থে লাভবান হচ্ছে। ডিয়ার লটারি হল তৃণমূল নেতাদের কালো টাকা সাদাতে রূপান্তরিত করার উপায়।"

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad