পরমাণু মহড়ার ঘোষণা পুতিনের! হুঁশিয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্টের - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 26 October 2022

পরমাণু মহড়ার ঘোষণা পুতিনের! হুঁশিয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্টের



ইউক্রেনের সঙ্গে চলমান যুদ্ধের মধ্যেই রাশিয়া ও আমেরিকার মধ্যে উত্তেজনা বাড়ছে।  প্রতিনিয়ত পারমাণবিক হামলার হুমকি দেওয়া রাশিয়া আবারও পারমাণবিক মহড়া করতে যাচ্ছে।  গত ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়া পারমাণবিক মহড়া চালিয়েছিল।  রাশিয়াও আমেরিকাকে তাদের মহড়ার আনুষ্ঠানিক তথ্য দিয়েছে। উল্লেখ্য, 30 অক্টোবর পর্যন্ত আমেরিকা ও তার মিত্ররা পারমাণবিক মহড়া চালাচ্ছে।  2 পরাশক্তির পারমাণবিক মহড়া জেলেনস্কিকে ভয় দেখিয়েছে।



 এটি ইউক্রেন যুদ্ধের সবচেয়ে বিপজ্জনক মোড়।  17 অক্টোবর থেকে, 14টি ন্যাটো দেশ বেলজিয়ামে পারমাণবিক মহড়ায় নিযুক্ত রয়েছে।  30 অক্টোবর এই পারমাণবিক মহড়া শেষ হওয়ার আগেই রাশিয়া থেকে একটি বড় খবর এসেছে।  ন্যাটোকে মোকাবেলা করতে রাশিয়াও পারমাণবিক মহড়া শুরু করছে।  যার নাম থান্ডার নিউক্লিয়ার এক্সারসাইজ।  রাশিয়ায় একে গ্রোমও বলা হয়।



  ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ ক্রেমলিনে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।  যদিও থান্ডার পারমাণবিক মহড়ার কথা আমেরিকাকে জানিয়েছে রাশিয়া।  কিন্তু তারপরও আমেরিকা ও ন্যাটো দেশগুলো এই সময়ে রাশিয়ার পারমাণবিক মহড়া সংক্রান্ত প্রতিটি আপডেটের ওপর নজর রাখছে।  ইউক্রেনের যুদ্ধে পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের আশঙ্কার মধ্যে রুশ সেনাবাহিনীর পারমাণবিক মহড়াকে নিছক একটি নিয়মিত মহড়া বলে উপেক্ষা করা যায় না।



রাশিয়ার কাছ থেকে পারমাণবিক হামলার হুমকি নিয়ে মঙ্গলবার রাতে এক প্রশ্নের জবাবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, 'যে কোনও পারমাণবিক হামলা অবশ্যই রাশিয়ার 'গুরুতর ভুল' হবে। পারমাণবিক হামলার বিষয়ে সতর্ক করে দিচ্ছেন যে এটি করা উচিৎ নয়। ভুল করেও ইউক্রেনে পারমাণবিক হামলা, নইলে খারাপ পরিণতি ভোগ করতে হবে।'



 গত কয়েকদিন ধরে ইউক্রেনে পারমাণবিক হামলার সম্ভাবনা বেড়েছে এবং এর পেছনে অনেক কারণ রয়েছে।  প্রথম কারণ ছিল ইউক্রেনের সাথে যুদ্ধে বেলারুশে রাশিয়ান সেনাবাহিনীর ভূমি আকস্মিকভাবে ব্যবহার করা।  পরমাণু হামলার কারণেই রাশিয়া এই পদক্ষেপ নিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।



 একইসঙ্গে অন্য কারণটিও হল, অতীতে রাশিয়া ইউক্রেনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিল যে তারা তার নিজের মাটিতে নোংরা বোমা ব্যবহার করতে পারে, কিন্তু ইউরোপীয় দেশগুলি এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে এবং এটি উল্টো রাশিয়ার পারমাণবিক হামলা বলে মনে করা হচ্ছে।  পরমাণু হামলার সম্ভাবনাও বাড়ছে কারণ অনেক দেশ হঠাৎ করেই তাদের নাগরিকদের অবিলম্বে ইউক্রেন ছাড়ার পরামর্শ দিচ্ছে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad