লোকালয়ে চিতাবাঘ! ভয়ে দিশেহারা জনগণ - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Sunday, 6 November 2022

লোকালয়ে চিতাবাঘ! ভয়ে দিশেহারা জনগণ

 






সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হচ্ছে একটি চমকপ্রদ ভিডিও।  গুজরাট, মধ্যপ্রদেশ, কর্ণাটকে এমন ঘটনা প্রতিদিনই দেখা যাচ্ছে।  ভয়ঙ্কর বন্য প্রাণীরা যখন বন থেকে বেরিয়ে শহরে আসে।  এতে বন্যপ্রাণী ও মানুষ উভয়েরই ক্ষতি হয়।  বন্যপ্রাণীরা কোথায় যাবে কী করবে বুঝতে পারে না।  আওয়াজ করছে এরা কারা?  তারা দৌড়াচ্ছেন কেন? এই চিন্তায় বন্য প্রাণীরা আশ্রয় খুঁজতে থাকে। সেই সঙ্গে মানুষ দেখলে ভয় পেয়ে যায়।  এর পরে, প্রাণীরা তাদের জীবন বাঁচাতে হিংস্র হয়ে ওঠে।  অনেক সময় এই প্রাণীগুলো মানুষকেও আহত করে।  একই রকম দৃশ্য দেখা যাচ্ছে ভিডিওতে।  


একটি চিতাবাঘ বন থেকে ঘুরে শহরে আসে।  সে জানে না কোথায় যাবে?  কিছু না বুঝলে একটা ভবনের নিচে চলে আসে।  সেই সঙ্গে কিছু লোকের চোখ পড়ে চিতাবাঘের দিকে, তখন লোকজন আওয়াজ করতে থাকে।  চিতাবাঘ এটা দেখে ভয় পেয়ে যায়।


এমন পরিস্থিতি দেখা দিলে আওয়াজ না করে বন বিভাগকে ফোন করাই ভালো।  তবে বন বিভাগকে না জানিয়ে স্থানীয় লোকজন হৈচৈ শুরু করে।  এটি দেখে চিতাবাঘটি সেখান থেকে ছুটতে শুরু করে।  তখন ওপাশ থেকে একজন বাইক নিয়ে আসতে থাকে।  বাইকের শব্দ শুনে চিতাবাঘ আরও ঘাবড়ে যায়।  এর পর সে বাইক আরোহীর উপর হামলা চালায়।  এতে বাইক আরোহী পড়ে যায়।  তবে আওয়াজের কারণে চিতাবাঘটি তাকে ছেড়ে চলে যায়।  একই সময়ে, একজন লোক চিতাবাঘটিকে হত্যা করার সাহস করে এবং রাস্তায় চলে যায়।  পরের মুহুর্তে চিতাবাঘটি ওই ব্যক্তিকে আক্রমণ করতে ছুটে যায়।  এরপর যা ঘটেছিল তা ভিডিওতে দেখানো হয়নি।  তবে এ ধরনের কাজ পরিহার করতে হবে।  বাড়ির আশেপাশে বন্যপ্রাণী দেখা গেলে আওয়াজ ও হয়রানি না করে বন বিভাগকে জানাতে হবে।  


সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে ভারতীয় পরিষেবা অফিসার সুশান্ত নন্দা এই ভিডিওটি শেয়ার করেছেন।  এই খবর লেখা পর্যন্ত ভিডিওটি দেখা হয়েছে ৫৭ হাজার বার।  একই সঙ্গে ভিডিওটিতে লাইক দিয়েছেন এক হাজার মানুষ।  একজন ব্যবহারকারী অজয় ​​লিখেছেন চিতাবাঘের আগে ভিড় নিয়ন্ত্রণ করা উচিৎ।


No comments:

Post a Comment

Post Top Ad