'বেওয়াফাই নেহি করনে কা', প্রেমিকার গলা কেটে ফেসবুকে পোস্ট প্রেমিকের - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Wednesday, 16 November 2022

'বেওয়াফাই নেহি করনে কা', প্রেমিকার গলা কেটে ফেসবুকে পোস্ট প্রেমিকের



শ্রদ্ধা খুনের পর মধ্যপ্রদেশের জবলপুর থেকে একটি হৃদয় বিদারক ঘটনা সামনে এসেছে।  এখানে এক ব্যক্তি তার প্রেমিকাকে গলা কেটে খুন করেছে।  এ সময় অভিযুক্ত একটি ভিডিও তৈরি করে যা সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে।  ভিডিওতে তাকে বলতে শোনা যায় "বেওয়াফাই নেহি করনে কা…।" ভিডিওর সত্যতা যাচাই করে নি প্রেসকার্ড নিউজ।

 

জানা গিয়েছে, অভিযুক্তের নাম অভিজিৎ পতিদার।  অভিযুক্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করেছে যাতে এক যুবতীকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়।  ভিডিওতে দেখা যায়, অভিযুক্ত প্রথমে মেয়েটির শরীর কম্বল দিয়ে ঢেকে দিলেও কিছুক্ষণ পর সে তার হাতের কাজ দেখানোর জন্য কম্বল খুলে ফেলে।



ঘটনাটি এক সপ্তাহ আগে ঘটেছিল বলে জানা গেছে, কিন্তু পুলিশ এখনও অভিজিৎ পতিদারকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।  অভিজিৎ দাবী করেন যে তিনি তার প্রেমিকা শিল্পা ঝরিয়াকে (২৫) খুন করেছেন।  জবলপুরের মেখলা রিসোর্টের একটি রুম থেকে উদ্ধার হয় শিল্পার দেহ।



 অন্য একটি ভিডিওতে অভিজিৎ নিজেকে পাটনার একজন ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচয় দেন।  অভিযুক্ত জিতেন্দ্র কুমারকে তার ব্যবসায়িক অংশীদার হিসাবে চিহ্নিত করে এবং অভিযোগ করে যে তার প্রেমিকা এবং ব্যবসায়িক অংশীদারের মধ্যে অবৈধ সম্পর্ক ছিল।  অভিযুক্ত আরও বলেন, শিল্পা প্রায় ১০ লাখ টাকা ধার নিয়েছিলেন।


 তৃতীয় ভিডিওতে, অভিজিৎকে কথিতভাবে বলতে শোনা গেছে, "বাবু আবার স্বর্গে দেখা করব।"  যদিও পরে তিনি ভিডিওগুলো মুছে দেন।  অভিজিৎ জিতেন্দ্রর সহযোগী সুমিত প্যাটেলের নামও নিয়েছিলেন।  জিতেন্দ্র ও সুমিত দুজনকেই বিহার থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং মধ্যপ্রদেশ পুলিশ তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করছে।



 পুলিশ জানিয়েছে, ভিডিওতে দেখা মৃত মহিলা এবং অভিযুক্তরা ৫ নভেম্বর জবলপুরের একটি রিসর্টে ছিলেন।  অভিযুক্ত অভিজিৎ পতিদারকে শেষ দেখা গিয়েছিল ৭ নভেম্বর রিসোর্টে।  ৮ নভেম্বর হোটেলের রুমের দরজা দীর্ঘক্ষণ না খুললে কর্মীরা মাস্টার চাবি দিয়ে কক্ষ খুলে ভেতরে শিল্পার দেহ দেখতে পান।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad