রাজ্যে কড়া নাড়ছে এই মারাত্মক রোগ, শরীরে লাল দাগ দেখা দিলেই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Saturday, 12 November 2022

রাজ্যে কড়া নাড়ছে এই মারাত্মক রোগ, শরীরে লাল দাগ দেখা দিলেই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন


ডেঙ্গুর পর এবার মুম্বাইয়ে কড়া নাড়ছে এই মারাত্মক রোগ। এই রোগ মুম্বাইবাসীদের রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছে। এটি হল হাম, যা ডেঙ্গুর পর দেশে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। মুম্বইয়ে হামের প্রাদুর্ভাবের পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় সরকার কিছু গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করেছে।


'হাম' রোগটি একটি ভাইরাস দ্বারা সৃষ্ট, যা সহজেই ছড়িয়ে পড়ে। এই রোগ শিশুদের জন্য গুরুতর এবং মারাত্মক বলে মনে করা হয়। এটি অনেক জায়গায় 'রুবেলা' নামেও পরিচিত। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রক মুম্বাই শহরের স্টক নিতে একটি উচ্চ-স্তরের উচ্চ-পর্যায়ের কমিটি গঠন করেছে, যার একটি দল মুম্বাইতে পাঠানো হয়েছে, যারা গোটা রাজ্য পর্যালোচনা করবে যে, মুম্বাইয়ে এই রোগ কতটা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে।


হাম দ্রুত একজনের থেকে আরেকজনে ছড়ায়। এটি প্রথমে যে কোনও ব্যক্তির শ্বাসতন্ত্রকে আক্রমণ করে। ওষুধ ও টিকা দিয়ে এই রোগ প্রতিরোধ করা যায়। আপনি জেনে অবাক হবেন যে হাম বিশ্বব্যাপী মৃত্যুর অন্যতম প্রধান কারণ। 'বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা'র তথ্য অনুযায়ী, ২০১৭ সালে সারা বিশ্বে প্রায় ১ লাখ ১০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে শুধু হামের কারণে, যাদের অধিকাংশই শিশু এবং তাদের বয়স ছিল ৫ বছরের কম।


এই ভাইরাসটি 'প্যারামিক্সোভাইরাস' পরিবারের অন্তর্গত, যা প্রথম ব্যক্তির শ্বাস-প্রশ্বাসের টিউব এবং পুরো শ্বাসযন্ত্রকে সংক্রমিত করে এবং পরে তা শরীরের অন্যান্য অংশে ছড়িয়ে পড়ে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, ভারতে হামের ঘটনা দিন দিন বাড়ছে। ২০২২ সালের সেপ্টেম্বর মাসে দেশে হামের সংখ্যা ছিল ১১ হাজার ১৫৬টি। গত বছরের তুলনায় ৭৯ শতাংশ বেড়েছে। সবচেয়ে আশ্চর্যের বিষয় হল, ২০২২ সালে মাত্র দুই মাসে হামের রোগীর সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছে।


হামের প্রাথমিক লক্ষণ হল প্রচন্ড জ্বর। যদি একজনের খুব বেশি জ্বর হয়, তাহলে বুঝবেন হাম তার প্রথম লক্ষণ দিয়েছে। ভাইরাসের সংস্পর্শে আসার প্রায় ১০-১২ দিন পরে জ্বর শুরু হয় এবং তারপর ৪ থেকে ৭ দিন স্থায়ী হয়। একজন ব্যক্তির কাশি, নাকে জল, লাল চোখ, গলা ব্যথা এবং মুখের ভিতরে সাদা ছোপ থাকতে পারে এর পাশাপাশি শরীরে লাল ফুসকুড়ি সবই হামের লক্ষণ হতে পারে।


Healthline.com এর মতে, হামের ফুসকুড়ি সাধারণত মাথায় দেখা দেয় এবং ধীরে ধীরে শরীরের অন্যান্য অংশে ছড়িয়ে পড়ে। শিশু এবং গর্ভবতী মহিলাদের জন্য হামের টিকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই রোগের সংক্রমণ খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে এবং এটি যে কোনও ব্যক্তিকে ১০ দিনের জন্য অসুস্থ করতে পারে। হামের সময় ফুসফুসের রোগ হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।  


একটি মিড-ডে রিপোর্ট অনুসারে, বৃহন্মুম্বাই মিউনিসিপ্যাল ​​কর্পোরেশন (বিএমসি) গোভান্দি এলাকায় এই রোগের কারণে তিনটি শিশু মারা যাওয়ার পরে মুম্বাইয়ের বস্তি এলাকায় হামের বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে রিপোর্ট করা হয়েছে।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad