ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমাতে কার্যকারী কুমড়োর বীজ - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Friday, 13 January 2023

ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমাতে কার্যকারী কুমড়োর বীজ

 








এখন ডায়াবেটিস রোগটি খুব সাধারণ। শরীর যখন ইনসুলিন উৎপাদন বন্ধ করে দেয় তখন এই রোগ হয়। এটি একটি হরমোন যা চিনিকে শক্তিতে রূপান্তর করতে কাজ করে। এ সময় রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়তে থাকে। ডায়াবেটিসের সময় চিকিৎসকরা মনে করেন এই সময়ে অনেক কিছু খাওয়া কার্যকর প্রমাণিত হতে পারে। ভালো কিছু খেলে রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।



ডায়াবেটিস রোগে রক্তে শর্করার সঠিক ব্যবস্থাপনা করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই উপলক্ষে আমরা যদি আপনাকে এমন একটি জিনিস বলি যা খেলে আপনার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে থাকবে। এটি হচ্ছে কুমড়া বীজ। একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে কুমড়ার বীজ পলিস্যাকারাইড নামক কার্বোহাইড্রেট সমৃদ্ধ। কুমড়োর বীজ চিনি নিয়ন্ত্রণে খুবই উপকারী বলে মনে করা হয়।



অনেক গবেষণা অনুসারে কুমড়ার ভিতরে দুটি যৌগ রয়েছে। একটি ট্রাইগোনেলাইন এবং অন্যটি নিকোটিনিক এসিড।  এই দুটিই ডায়াবেটিসের প্রভাব কমাতে পারে।  শুধু তাই নয় এমন অনেক গবেষণা হয়েছে যাতে কুমড়াকে উপকারী বলে উল্লেখ করা হয়েছে।  কিন্তু এই গবেষণার বেশিরভাগই শুধুমাত্র প্রাণীদের উপর করা হয়েছে।



কুমড়োর বীজে রয়েছে শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট।  এর বীজ প্রোটিন এবং চর্বি সমৃদ্ধ। ২০১৮ সালে পরিচালিত একটি সমীক্ষা অনুসারে প্রতিদিন প্রায় ৫০ গ্রাম কুমড়ার বীজ খেলে শরীরে রক্তে শর্করার মাত্রা ৩৫% নিয়ন্ত্রণে থাকে। এটি বিশ্বাস করা হয় যে কুমড়ার বীজে পাওয়া ম্যাগনেসিয়াম তাদের আরও শক্তিশালী করে তোলে। গবেষণায় আরও বলা হয়েছে যে ম্যাগনেসিয়াম ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমাতে পারে।



কুমড়ার বীজ খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে কারণ এটি ইনসুলিনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। এর সঙ্গে এটি খেলে আপনার অক্সিডেটিভ স্ট্রেসও কমে যায়।

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad