১৯ নয়, চাকরির নামে ৩০ কোটি নিয়েছেন কুন্তল! চাঞ্চল্যকর দাবী ইডির - press card news

Breaking

Post Top Ad

Post Top Ad

Sunday, 22 January 2023

১৯ নয়, চাকরির নামে ৩০ কোটি নিয়েছেন কুন্তল! চাঞ্চল্যকর দাবী ইডির


এসএসসি দুর্নীতি মামলায় তৃণমূল নেতা কুন্তল ঘোষকে হেফাজতে নিয়েই জেরা শুরু করে ইডি। তার বিরুদ্ধে পাওয়া ৩০ কোটি টাকার নতুন তথ্যের বিস্তারিত তথ্য পেতে চায় ইডি দল। এছাড়াও, তদন্তে আরও জানা গেছে যে কুন্তলের শুধু তাপস মণ্ডলের সাথেই নয়, পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং মানিক ভট্টাচার্যের সাথেও ভালো যোগাযোগ ছিল। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে অনেক লোক তাঁকে আসা-যাওয়া করতে দেখেছে। ইডির কাছে কুন্তলের বিরুদ্ধে প্রচুর প্রমাণ রয়েছে, যা ইডি আধিকারিকরা একে একে দেখাবেন এবং সে সম্পর্কে তথ্য চাইবেন।


ইডি সূত্র বলছে, এই দুর্নীতির মামলায় চার্জশিটে আগেই তার নাম দেওয়া হয়েছিল। অভিযোগপত্রে আরও বলা হয়েছে যে ৩২৫ জন প্রার্থীকে চাকরি দেওয়ার জন্য একজন 'ঘোষ বাবু'কে ৩ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা দেওয়া হয়েছিল কিন্তু সেই 'ঘোষ বাবু'র পরিচয় চার্জশিটে প্রকাশ করা হয়নি। ইতিমধ্যেই জেল হেফাজতে থাকা মানিক ভট্টাচার্যের ঘনিষ্ঠ তাপস মণ্ডল প্রথমবার কুন্তল ঘোষের নাম সামনে আনেন। ইডি সূত্রে খবর, তাপস তাদের কাছে দাবী করেছিলেন যে 'ঘোষ বাবু' আসলে হুগলির যুব নেতা কুন্তল। এর আগে, তাপস মণ্ডল সিবিআই দলের সামনে প্রকাশ করেছিলেন যে কুন্তল ঘোষ চাকরি প্রার্থী‌দের কাছ থেকে ১৯.৫ কোটি টাকা নিয়েছেন। এখন ইডি জানিয়েছে, শুধু এতটুকুই নয়, ৩০ কোটি টাকা নেওয়া হয়েছে। যদি সূত্র বিশ্বাস করা হয়, ইডি দল তার কাছ থেকে এই সত্য জানতে চায়।


গত বুধবার তৃণমূল নেতা কুন্তল ঘোষকে জেরা করেছিল সিবিআই। সেখান থেকে বেরিয়ে এসে তিনি বলেন, আমি যদি সত্যিই টাকা নিতাম, তাহলে সিবিআই অফিসাররা কি আমাকে এত সহজে ছেড়ে দিতেন?' এরপর বৃহস্পতিবার ফের নিজাম প্যালেসে কুন্তলকে ডেকে পাঠিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই। ফের রাত গড়াতেই শুক্রবার সকালেই নিউটাউনের বিলাসবহুল আবাসনে তাঁর জোড়া ফ্ল্যাটে হানা দেয় ইডি। ২৪ ঘন্টা ধরে ম্যারাথন তল্লাশির পর শনিবার ইডির হাতে গ্ৰেফতার যুব তৃণমূল নেতা কুন্তল ঘোষ। তদন্তে অসহযোগিতা ও বিভ্রান্ত কয়ারার অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়, শনিবার আদালতে একথা জানায় ইডি। 


এদিনই তাঁকে ব্যাঙ্কশাল কোর্টে পেশ করে ইডি। ইডির আইনজীবী এদিন চাঞ্চল্যকর দাবী করেন; এখনও পর্যন্ত ইডির হাতে যে হিসেব রয়েছে, চাকরির নামে ৩০ কোটি টাকা কুন্তল ঘোষ নিয়েছেন বলে তদন্তকারীরা জানতে পারেন। তল্লাশি চলাকালীন যে নোট বুক যুবনেতার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছে, তাতেই টাকা নেওয়ার তথ্য লেখা ছিল, বলেও দাবী করেন তিনি। পাশাপাশি তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১৪ দিনের হেফাজতে চেয়ে আবেদন জানানো হয়। আদালত সেই আবেদনে সাড়া দেয় এবং কুন্তল ঘোষকে ৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ইডি হেফাজতের নির্দেশ দেয়।    

No comments:

Post a Comment

Post Top Ad